বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিশ্বকাপের আগেও সে অর্থে ফেবারিট তকমা ছিল না অস্ট্রেলিয়ার। তাদের টি-টোয়েন্টি খেলার ধরন ঠিক এখনকার তথ্য-বিশ্লেষণের যুগের সঙ্গে যায় না—কথা ছিল এমনও। তবে টুর্নামেন্টে উড়তে থাকা পাকিস্তানকে থামিয়ে ঠিকই সেমিফাইনালে এসেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল।

ফাইনালের আগে এক টুইটে নিজের ভবিষ্যদ্বাণীতে অস্ট্রেলিয়াকে ‘সুখবরই’ শুনিয়েছেন ১৯৯৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী ওয়ার্ন।

ওয়ার্নের মতে, শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে জিতবে অস্ট্রেলিয়া। এ টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত দুবাইয়ে রাতে হওয়া সব কটি ম্যাচেই জিতেছে পরে ব্যাটিং করা দল। ফাইনালের আগে অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক ফিঞ্চ বলেছেন, টসে জিতলে তারা ফিল্ডিংই নেবে। যদিও আগে ব্যাটিং করতে হলেও তাদের ভাবনার তেমন কিছু নেই।

ওয়ার্নের ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী, টসে জিতে আগে বোলিং করবে অস্ট্রেলিয়াই। এরপর নিউজিল্যান্ডকে ১৫৫ রানে আটকে দেবে তারা। কিউইদের হয়ে সবচেয়ে বেশি ছয় মারবেন গ্লেন ফিলিপস, ৬ ইনিংসে এখন পর্যন্ত তিনি মেরেছেন ৪টি ছক্কা। তবে ওয়ার্নের মনে হচ্ছে, ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটা খেলবেন ড্যারিল মিচেল।

সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের অন্যতম নায়ক ছিলেন ওপেনার মিচেল, বিশ্বকাপের আগে স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি যিনি কখনোই ইনিংস উদ্বোধন করতে আসেননি।

বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার সেরা পারফরম্যান্সটা পেসার প্যাট কামিন্সের কাছ থেকেই আসবে বলে মনে করেন ওয়ার্ন। সেমিফাইনালে পাকিস্তান ইনিংসে ১৯তম ওভার করতে এসে মাত্র ৩ রান দিয়েছিলেন কামিন্স। সাবেক পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার জানিয়েছিলেন, সে ওভারেই অনেকটা পিছিয়ে গেছে পাকিস্তান।

রান তাড়ায় অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসটি মিচেল মার্শ খেলবেন বলেই অনুমান করেছেন ওয়ার্ন। তবে সবচেয়ে বেশি ছয় মারবেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। মজার ব্যাপার হচ্ছে, টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত একটিও ছয় মারেননি ম্যাক্সওয়েল। শেষ পর্যন্ত ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া জিতবে ৬ উইকেটে, ওয়ার্নের চূড়ান্ত ভবিষ্যদ্বাণী এটাই। শেষ পর্যন্ত মিলবে কয়টি?

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন