আজ ব্যাটসম্যানদের অনুশীলন ভালোই হলো।
আজ ব্যাটসম্যানদের অনুশীলন ভালোই হলো। ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কায় দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন বাংলাদেশ টেস্ট দলের ব্যাটসম্যানদের ভালোই প্রস্তুতি হলো। কাতুনায়েকে স্টেডিয়ামে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন তামিম ইকবালের লাল দল মুমিনুল হকের সবুজ দলের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ৭৯ ওভার খেলে ৬ উইকেটে ৩১৪ রান করেছে।

মুশফিকুর রহিম সর্বোচ্চ ৬৬ রান করেছেন। এ ছাড়া তামিম ইকবাল ৬৩, নাজমুল ইসলাম ৫৩, সাইফ হাসান ৫২ ও নুরুল হাসান করেছেন ৪৮ রান। লাল দলের ছয়জন ব্যাটসম্যানের মধ্যে পাঁচ ব্যাটসম্যানই স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে মাঠ ছাড়েন। একমাত্র তাইজুল ইসলামের উইকেট পেয়েছেন শুভাগত হোম।

default-image
বিজ্ঞাপন

৫৩ রান করে মাঠ ছাড়া নাজমুল প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে যা চেয়েছিলেন, তা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন। বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘আমার মনে হয় টেস্ট শুরুর আগে এটা খুব ভালো একটা প্রস্তুতি। যেটা করতে চেয়েছিলাম আজকে, ওই পরিকল্পনা অনুযায়ী ব্যাটিং করতে পেরেছি। আশা করছি, এভাবে যদি ব্যাট করতে পারি তাহলে আমাদের টেস্ট ম্যাচের জন্য ভালো হবে।’

শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্টের সাফল্য পেতে হলে কী করতে হবে, তার ইঙ্গিতও আছে নাজমুলের কথায়, ‘আমার কাছে মনে হয় যে যত ধৈর্য নিয়ে সময় নিয়ে ব্যাটিং বা বোলিং করবে, সফল হওয়ার সম্ভাবনা সে দলেরই বেশি থাকবে। আমার মনে হয় এত চিন্তা না করে আমরা যদি সেশন ধরে ধরে চিন্তা করি, তাহলে আরেকটু সহজ হবে। ওটাই পরিকল্পনা, আমরা কীভাবে ধরে ধরে ভালো করতে পারি।’

আজ প্রস্তুতি ম্যাচ দেখে সন্তুষ্টই মনে হলো প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীনকে। দেশের বাইরে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ কন্ডিশন। সেই চ্যালেঞ্জ নাকি গত কয়েক দিনের অনুশীলনে উতরে গেছে মুমিনুল হকের দল।

default-image

বিসিবির ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘দুই দিনের ম্যাচের প্রথম দিন আমরা শেষ করতে যাচ্ছি আজ। আমার মনে হয় খেলোয়াড়েরা যথেষ্ট অভ্যস্ত হয়েছে কন্ডিশন ও উইকেটের সঙ্গে। যথেষ্ট ভালো অনুশীলন হয়েছে।’

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন দলের ব্যাটসম্যান ও বোলারদের পারফরম্যান্স নিয়ে প্রধান নির্বাচক শোনালেন আশার কথা, ‘আমাদের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ভালো ব্যাটিং করেছে, বোলাররা যথেষ্ট চেষ্টা করেছে লাইন–লেংথ ও ভালো জায়গায় বল করার। সব মিলিয়ে আমি বলব, এটা খুব ভালো প্রস্তুতিতে সহায়তা করছে, আগামীকাল আরও এক দিনের খেলা আছে। আমি মনে করি এরপর আমরা টেস্ট ক্রিকেটের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুতি নিতে পারব।’

মিনহাজুলের প্রস্তুতি ম্যাচের উইকেটকে ব্যাটিং–সহায়ক বললেও সকালবেলায় চ্যালেঞ্জটা নাকি সহজ ছিল না ব্যাটসম্যানদের জন্য। সে জন্যই তামিমের দলের ওপেনারদের প্রশংসা করে বলেছেন, ‘উইকেটের যে কন্ডিশন ছিল প্রথম ঘণ্টায় ব্যাটিং করা কঠিন ছিল। আমাদের ওপেনার তামিম, সাইফ এরা অসাধারণ ব্যাটিং করেছে। শান্ত (নাজমুল), মুশফিক অসাধারণ ব্যাটিং করেছে। বোলাররাও মনেপ্রাণে চেষ্টা করেছে অভ্যস্ত হওয়ার জন্য। আমার বিশ্বাস এই প্র্যাকটিস ম্যাচ থেকে আমরা যথেষ্ট ভালো কিছু বার্তা পেয়েছি।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন