হয়তো ওরা হারিসের গল্পটা দেখে ভেবেছে, পাকিস্তানের ক্রিকেটে যদি এমনটা হতে পারে, তাহলে ভারতের ক্রিকেটে কেন নয়!
লাহোর কালান্দার্সের মালিক সামিন রানা

২০১৮ সালে রউফকে নিলামে কিনে নেয় লাহোর, তখনো প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলার কোনো অভিজ্ঞতাই ছিল না রউফের। কিন্তু পিএসএলের পর রউফের সাফল্য আসতে দেরি হয়নি। ঘরোয়া ক্রিকেটে রউফের অভিষেক তার এক বছর পর, আর ২০২০ সালে গায়ে ওঠে পাকিস্তানের জার্সি।

উমরানের ক্ষেত্রে গল্পটা কী হবে, সেটি বলবে ভবিষ্যৎ। তবে এখন পর্যন্ত দারুণ গল্প লিখে যাচ্ছেন জম্মু-কাশ্মীরে জন্ম নেওয়া উমরান।

ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার গতিতে বল করে যাওয়া উমরান উইকেটও পাচ্ছেন নিয়মিত—এ পর্যন্ত টুর্নামেন্টে ৭ ম্যাচে উইকেট ১০টি, যদিও রান দিচ্ছেন ওভারপ্রতি গড়ে ৮.২৩ করে।

default-image

একেবারে খারাপ নয়, আর এতটুকুতে উমরান মালিকের নিয়মিত খবরের শিরোনাম হওয়াও আটকাচ্ছে না। তবে কেউ সফল হলে তাঁর সাফল্যের পেছনের দাবিদারের সংখ্যাও তো বাড়তে থাকে হুহু করে, উমরানের ক্ষেত্রে মজার ব্যাপার হলো, তাঁর সাফল্যের পেছনে প্রেরণার দাবি আসছে পাকিস্তান থেকে!

উমরানের গল্পে প্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে রউফের গল্প—এমনই দাবি সামিন রানার। শুধু উমরানই নয়, তাঁর ফ্র্যাঞ্চাইজির হাত ধরে পাকিস্তানের ক্রিকেট ভারতের ক্রিকেটকেই অনুপ্রাণিত করেছে বলে গর্ব লাহোরের ফ্র্যাঞ্চাইজিটির মালিকের।

পাকটিভিতে সামিন রানা বলেছেন, ‘খুব খুশি লাগছে যে লাহোর কালান্দার্স শুধু পাকিস্তানের ক্রিকেটই নয়, ভারতের ক্রিকেটেও ছাপ ফেলেছে। আপনি যদি উমরান মালিকের গল্পটা দেখেন, দেখবেন এটা আসলে হারিস রউফের গল্প থেকে অনুপ্রাণিত। হয়তো ওরা হারিসের গল্পটা দেখে ভেবেছে, পাকিস্তানের ক্রিকেটে যদি এমনটা হতে পারে, তাহলে ভারতের ক্রিকেটে কেন নয়!’

default-image

কেন এমনটা মনে হচ্ছে সামিন রানার? ‘কারণ এখানে তো সাদৃশ্য অনেক। দুজনই সাদা বলের ক্রিকেটে শুরু করেছে, দুজনই জম্মু-কাশ্মীর থেকে উঠে আসা, দুজনের কারওই এর আগে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের অভিজ্ঞতা ছিল না’—লাহোর ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকের ব্যাখ্যা। হারিসের জন্ম রাওয়ালপিন্ডিতে।

টি নটরাজনের করোনা হওয়ায় বিকল্প পেসারের খোঁজেই ২০২১ সালে সানরাইজার্স টেনে নেয় উমরানকে। তবে হায়দরাবাদের দলটিতে যোগ দেওয়ার আগেই জম্মু-কাশ্মীর দলের অংশ ছিলেন উমরান। সে সময়ে ২১ বছর বয়সী উমরানের তত দিনে নিজ রাজ্যের হয়ে দুটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ, একটি টি-টোয়েন্টি ও একটি লিস্ট এ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা হয়ে গেছে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন