default-image
>গ্রান্ট ফ্লাওয়ারের গলায় ছুরি ধরেছিলেন ইউনিস খান। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রশিদ লতিফের দাবি ফ্লাওয়ার-ইউনিস বিরোধের মূলে আছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন

পাকিস্তান ক্রিকেটে ঘটে যাওয়া এক ভয়ংকর ঘটনার বর্ণনা সম্প্রতি দিয়েছেন সাবেক জিম্বাবুইয়ান তারকা ও পাকিস্তান দলের ব্যাটিং কোচ গ্রান্ট ফ্লাওয়ার। সাবেক অধিনায়ক ইউনিস খান নাকি তাঁর গলায় ছুরি ধরেছিলেন! পাকিস্তানের আরেক সাবেক অধিনায়ক রশিদ লতিফ মনে করেন, এই ঘটনার পেছনে আছেন মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন!

ভারতের সাবেক অধিনায়ক আজহারউদ্দিনকে লতিফ এর মধ্যে কেন টানলেন, সেটা অবাক করার মতোই। লতিফের মতে, ২০১৬ সালে ওভালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ এক সেঞ্চুরি করেছিলেন ইউনিস। ফর্মে না থাকা ইউনিস সে ইনিংসটির আগে আজহারের শরণাপন্ন হয়েছিলেন। তিনি সেঞ্চুরির পর কোথাও গ্রান্ট ফ্লাওয়ারের নাম নেননি।

তবে লতিফ কেন আজহারের প্রসঙ্গ টানলেন, সেটি এই ঘটনাতেও পরিষ্কার হচ্ছে না, 'ড্রেসিং রুমে কখন কী হয়, সেটা বলতে পারব না, তবে ফ্লাওয়ার–ইউনিসের ঘটনায় আজহারউদ্দিন একটা কারণ হতে পারে। ২০১৬ সালে ওভালে সেঞ্চুরি করে ইউনিস বলেছিল, সে আজহারের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়েছে। সে একটি বারের জন্যও গ্রান্ট ফ্লাওয়ারের নাম উচ্চারণ করেনি।'

লতিফ কেবল আজহারউদ্দিনকেই কারণ ভাবছেন না, তিনি এর পেছনে অন্য কারও থাকার বিষয়টিও উড়িয়ে দিচ্ছেন না, 'কোনো খেলোয়াড় যদি কোচকে এড়িয়ে বাইরের কারও সঙ্গে নিজের ব্যাটিং নিয়ে পরামর্শ করে তাহলে কোচের ভালো না–ই লাগতে পারে। আমার মনে হয় ফ্লাওয়ারের মনে আজহারউদ্দিনের ব্যাপারটি ছিল। তবে এর পেছনে নিশ্চয়ই কারও হাত থাকতে পারে।'

সম্প্রতি ফ্লাওয়ার এক পডকাস্টে ইউনিসের ঘটনাটি তুলে ধরেন। সে পডকাস্টে ছিলেন তাঁর ভাই অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারও। পরে কোচ মিকি আর্থার গ্রান্ট ফ্লাওয়ারের বলা ঘটনাটির সত্যতা সমর্থন করেন।


বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন