বল হাতে অস্ট্রেলিয়াকে ভুগিয়েছেন, বল পায়ে মুগ্ধ করেছেন রাশফোর্ডকে

পায়ের কাজ দেখাচ্ছেন জফরা আর্চার।
পায়ের কাজ দেখাচ্ছেন জফরা আর্চার। ছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন

তিন ম্যাচের সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নাটকীয়ভাবে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ১-১ সমতায় ফিরেছে ইংল্যান্ড। ওল্ড ট্রাফোর্ডে বল হাতে গতির ঝড় তুলে ৩৪ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন জফরা আর্চার।

বল হাতে অস্ট্রেলিয়াকে তো নাকানিচুবানি খাইয়েছেন এই ইংলিশ পেসার, একই ম্যাচে বল পায়ে মুগ্ধ করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ফুটবলার মার্কাস রাশফোর্ডকেও। কীভাবে?

ফুটবলের অন্যতম দর্শনীয় স্কিল নাটমেগ। প্রতিপক্ষের দুই পায়ের মাঝ দিয়ে বল নিতে পারার মধ্যে আলাদা ধরনের আনন্দ থাকে। কাল ওল্ড ট্রাফোর্ডে ক্রিকেট বলে এই কাজই করেছেন আর্চার।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে প্রতিপক্ষ নয়, নিজ দলের অধিনায়ক এউইন মরগানের পায়ের মধ্য দিয়ে। আর্চারের বলে ডিফেন্স করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স কেরি। ফিরতি বল ঠেকাতে গিয়েছিলেন আর্চার ও মরগান দুজনেই। কিন্তু বলটি হাতে তুলে না নিয়ে মজার ছলে মরগানকে নাটমেগ করেন আর্চার।

নাটমেগের সেই দৃশ্যের ভিডিওটি টুইটারে পোস্ট করে আর্চার ট্যাগ করেছিলেন ইংল্যান্ড জাতীয় দলের ফুটবলার রাশফোর্ডকে। ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘আমার রাতের সেরা অংশ। পা বন্ধ রেখো, অধিনায়ক। তুমি কী মনে করো, মার্কাস রাশফোর্ড?’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ম্যানচেস্টার ফরোয়ার্ডও উত্তর দিতে বেশি সময় নেননি। টুইটের উত্তরে তিনি লিখেছেন, ‘ভাই আমার, তুমি যা করতে পেরে আনন্দ পেয়েছে, তা দেখে আমার ভালো লাগছে।’

টুইটারে নাটমেগের প্রশংসা করেছেন আর্চারের সতীর্থ স্যাম বিলিংসও, ‘নাটমেগ দেখতে কী ভালো যে লাগে!’ উত্তরে আবার সেখানে রাশফোর্ড আবার লিখেছেন, ‘অপেক্ষায় থাকো!’

আর্চারের নাটমেগ নিয়ে কিছু না বললেও ম্যাচ জয়ের পর নিজের দলের পেসারকে নিয়ে মুগ্ধ ইংল্যান্ড অধিনায়ক মরগান, ‘জফরার থাকাটা অবশ্যই একটা বাড়তি সুবিধা। ওকসির (ক্রিস ওকস) ক্ষেত্রেও আমি একই কথা বলব। এটাই আমাদের সবচেয়ে শক্তিশালী দিক।’ ওকস ৩ উইকেট নিয়েছেন ৩২ রানে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন