বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে তিন ম্যাচে ৯০ রান করেন রিজওয়ান। ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ উঠে এসেছেন তিনি। অধিনায়ক বাবর এ সিরিজে তেমন ভালো করতে না পারলেও শীর্ষস্থান থেকে তাঁকে হটাতে পারেনি।

দুইয়ে ইংল্যান্ডের ডেভিড ম্যালান, তিনে দক্ষিণ আফ্রিকার এইডেন মার্করাম। রিজওয়ানের চেয়ে (৭৩৫) ৬ রেটিং পয়েন্ট পিছিয়ে পাঁচে ভারতের লোকেশ রাহুল (৭২৯)।

default-image

ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে পাকিস্তানের ফখর জামানেরও। ৪০তম স্থান থেকে ৩৫-এ উঠে এসেছেন এই বাঁহাতি। সিরিজের শেষ ম্যাচে ৩৮ বলে ৪৫ রান করা হায়দার আলীর র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫৩ ধাপ উন্নতি ঘটেছে। ১৮৪তম স্থানে উঠে এসেছেন তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে ব্যাটিংয়ে মোটেও ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ দল।

এর মাশুল গুনে ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ অবনমন ঘটে ২৩তম স্থানে নেমে গেছেন মোহাম্মদ নাঈম। এক ধাপ অবনমন ঘটেছে মাহমুদউল্লাহর। ৩০তম স্থানে নেমে গেছেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক।

তবে ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে চোখে পড়ার মতো উন্নতি হয়েছে আফিফ হোসেন ও মেহেদী হাসানের। ২৯ ধাপ এগিয়ে ৮৫তম স্থানে উঠে এসেছেন আফিফ। ৪৬ ধাপ উন্নতি হয়েছে স্পিন অলরাউন্ডার মেহেদী হাসানের।

বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি হয়েছে তাঁর। ৬ ধাপ উন্নতি ঘটিয়ে ১২তম স্থানে উঠে এসেছেন তিনি। ১৬ ধাপ উন্নতি ঘটিয়ে ৪৪তম স্থানে উঠে এসেছেন পাকিস্তানের পেসার হাসান আলী। স্পিনার শাদাব খান দুই ধাপ উন্নতি করে ঢুকেছেন শীর্ষ ১৫ জনের কাতারে—র‌্যাঙ্কিংয়ে তিনি ১৪তম।

বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথম ৯ ক্রিকেটারের অবস্থানের কোনো নড়চড় হয়নি। শীর্ষে শ্রীলঙ্কার স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন