সকালেই তিন উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ।
সকালেই তিন উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ।ছবি : শামসুল হক

জমে উঠেছে মিরপুর টেস্ট। প্রথম ইনিংসে ১১৩ রানে এগিয়ে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ তৃতীয় দিন শেষ করেছে ৩ উইকেটে ৪১ রান নিয়ে। চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে নেমে এর মধ্যেই বিপর্যয়ে পড়েছে ক্যারিবীয়রা। নাইটওয়াচম্যান জোমেল ওয়ারিক্যান, জার্মেইন ব্ল্যাকউড ও আগের টেস্টের নায়ক কাইল মেয়ার্সের উইকেট হারিয়েছে তাঁরা।

আগুন ঝরাচ্ছেন পেসার আবু জায়েদ। প্রথমে তাঁর লেংথ বলে এলবিডব্লুর শিকার হয়েছেন ওয়ারিক্যান। একই ভাগ্য বরণ করতে হয়েছে আগের টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা কাইল মেয়ার্সের। উইকেটে আছেন এনক্রুমা বোনার ও জশুয়া ডা সিলভা। এখনো পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ৭৩ রান তুলে ১৮৬ রানে এগিয়ে তারা।

গতকালই বোঝা গিয়েছিল, আস্তে আস্তে স্পিনারদের কথা শুনছে পিচ। সে কথা সত্যি প্রমাণ করতেই কি না, ব্ল্যাকউডকে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলেছেন তাইজুল। এখনো টেস্টে প্রায় দুদিন বাকি। এই টেস্ট যে ড্র হবে, সেটা একদমই জোর গলায় বলা যাচ্ছে না। হয় ড্র, না হয় জয়ের হাসি অথবা টেস্ট সিরিজে ধবলধোলাই হওয়ার গ্লানি— যেকোনো একটা জুটবে বাংলাদেশের কপালে। আর সেটা মোটামুটি ঠিক হয়ে যাবে আজ দিনের মধ্যেই। এই পিচে চতুর্থ-পঞ্চম দিনে চতুর্থ ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামার আগে লক্ষ্যটা যতটা সম্ভব কম রাখতে চাইবে বাংলাদেশ। আর মেয়ার্স যেহেতু চলেই গেছেন, তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভরসা করে থাকবে এই ডা সিলভা-বোনার জুটির ওপরে।

বিজ্ঞাপন

তবে সকালে শুরুর হওয়ার পর এর মধ্যেই হতাশাও ছুঁয়েছে বাংলাদেশকে। আবারও বাংলাদেশের মুখ হাসি ফুটিয়েই দিচ্ছিলেন আবু জায়েদ। কিন্তু বাধ সাধল সিদ্ধান্তহীনতা। আবু জায়েদের এক বল খেলতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মেয়ার্স। বাংলাদেশের আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে বাংলাদেশ পরে রিভিউও নেয়নি। কিন্তু পরে রিপ্লেতে দেখা যায়, বল মেয়ার্সের ব্যাট ছুঁয়ে গেছে। চট্টগ্রামে এই বোনার-মেয়ার্স জুটিই বাংলাদেশকে হারিয়ে দিয়েছে, এই জুটিটা ভেঙে দেওয়ার সুযোগ হেলায় হারাল বাংলাদেশ!

তবে সৌভাগ্য বলতে হবে, মেয়ার্সকে ফেরানোর জন্য আর বেশীক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। মেয়ার্সকে থরহরিকম্পমান দেখে জায়েদ বোধহয় পাকা শিকারীর মতো রক্তের গন্ধ পেয়ে গিয়েছিলেন, আর সেই তেজেই ফিরেছেন মেয়ার্স।

শেষমেশ বাংলাদেশের সামনে কত রানের লক্ষ্য দিতে পারবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ? আপনার কী মনে হয়, মতামত জানান ভোটে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন