default-image

তবে পরিসংখ্যান কিন্তু বলছে, শ্রীলঙ্কা দলের সমস্যার সমাধান করা কোচদের জন্য বেশ জটিল কাজ। গত এক দশকে ১১ কোচ পাল্টেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। সিলভারউড নিজের ইচ্ছা ও পরিকল্পনা জানালেন এভাবে, ‘গত কয়েক সপ্তাহ আমি পরিসংখ্যান নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। কীভাবে উন্নতি করা যায় এটা ছিল লক্ষ্য। একটা বিষয় হলো, রান করার মানসিকতা—ব্যাটসম্যানদের আত্মবিশ্বাস যোগাতে হবে যেন তারা ব্যাটিংয়ে নেমে আউট হওয়ার ভয় না পায়। তার মানে এই নয় যে অপরিণামদর্শী হতে হবে। যেটা বলতে চাচ্ছি, আমাদের বুদ্ধিমান হতে হবে। আমি চাই তারা যেন ইতিবাচক এবং সাহসী হয়। এই মানসিকতায় খেললে ডট বলের সংখ্যাও কমে আসবে।’

সামনে যেহেতু বাংলাদেশ সফর দিমুথ করুণারত্নের দল নিশ্চয়ই এ নিয়েই প্রস্তুতি সারছে। সিলভারউডের কথায়ও সে ইঙ্গিত মিলল, ‘অনুশীলনে আমি খেলোয়াড়দের সুনির্দিষ্ট হতে বলি। প্রতিপক্ষ কে সেটা মাথায় রেখে প্রস্তুতি নিতে হবে। দল ও পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার মতো অনুশীলন প্রয়োজন। প্রতিবার নেট থেকে আগের চেয়েও ভালো হয়ে বের হতে হবে। এসব করতে হলে মাথায় রাখতে হবে সামনে কী চ্যালেঞ্জ আছে। এরপর সে অনুযায়ী প্রস্তুতি নিয়ে পথ বের করতে হবে।’

বাংলাদেশ সফর সামনে রেখে এর আগে ১৮ জনের দল ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। প্রাথমিক দলে এর আগে রোশান সিলভাকে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এই সফরের আসতে না চাওয়ায় তাঁর বদলে নেওয়া হয় কামিন্দু মেন্ডিসকে। ৮ মে বাংলাদেশে আসবে শ্রীলঙ্কা দল।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন