বাবর আজমের স্ট্রাইকরেট নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।
বাবর আজমের স্ট্রাইকরেট নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।ছবি: রয়টার্স

বাবর আজম বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। বিরাট কোহলি, কেন উইলিয়ামসন, স্টিভ স্মিথদের কাতারে তাঁর নাম উচ্চারিত হয়। আবার সমালোচনাও শুনতে হয় তাঁকে। টি-টোয়েন্টিতে বাবরের স্ট্রাইকরেট নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকেই। এমনকি এ সংস্করণে শীর্ষস্থানীয় ব্যাটসম্যানদের একজন হয়েও মন্থর ব্যাটিংয়ের নিন্দা জোটে তাঁর কপালে।

ইংল্যান্ডে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে একেবারে খারাপ করেননি বাবর। ডেভিড মালান তাঁকে টপকানোর আগে টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে ছিলেন সংক্ষিপ্ত সংস্করণে পাকিস্তানের এ অধিনায়ক। এখন দ্বিতীয়স্থানে আছেন তিনি। র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ এক খেলোয়াড়ের ব্যাটিংয়ের সমালোচনা ঠিক মানায় না। পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কামরান আকমল ঠিক এমনই মনে করেন। তাঁর মতে, বাবরকে খাটো না করে তাঁকে প্রেরণা দেওয়া উচিত সবার।

default-image
বিজ্ঞাপন

টি-টোয়েন্টিতে বাবরের স্ট্রাইকরেট ১২৭.৯৩। কোহলির ১৩৮.২৪, উইলিয়ামসনের ১২৫.১৮ এবং স্মিথের স্ট্রাইকরেট ১৩১.১২। আহামরি কোনো পার্থক্য নেই। স্থানীয় এক সংবাদমাধ্যমে এ নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়েছেন কামরান, ‘এটা মর্মান্তিক বিষয় যে লোকে আমাদের সেরা ব্যাটসম্যানের সমালোচনা করে। লোকে বলে সে দ্রুত রান করতে পারে না, ম্যাচ জেতাতে পারে না। আমাদের সমস্যাটা কি? আমরা যদি সত্যিই উন্নতি চাই তাহলে সমালোচনা না করে তাকে প্রেরণা দেওয়া উচিত।’

টেস্ট সিরিজে ১৯৫ রান করেন বাবর। টি-টোয়েন্টি সিরিজে করেছেন ৭৭ রান। বাবরের মাপের ব্যাটসম্যানের কাছে এমন পারফরম্যান্স প্রত্যাশিত না হলেও ধৈর্য হারানোর কিছু নেই বলে মনে করেন কামরান। ইংল্যান্ডের মাটিতে বাবর ভালো শুরু পেয়েছেন ঠিকই কিন্তু ইনিংস টানতে পারেননি। পাকিস্তানের সাবেকরা তাঁর বড় ইনিংস খেলা ও নেতৃত্বের সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তুললেও কামরান ঠিকই পক্ষে আছেন বাবরের।

default-image
বিজ্ঞাপন

দীর্ঘদিন হয়ে গেল কামরান নিজেই ব্রাত্য পাকিস্তান দলে। দেশের হয়ে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন ২০১৭ সালে। মাঝে নানা বিতর্কও হয়েছে তাঁকে ঘিরে। ৩৮ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার এবার ভালো করেছেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। জাতীয় দলে আর সুযোগ পাবেন কি না, সে প্রশ্নের সরাসরি জবাব না দিয়ে কথাটা ঘুরিয়ে বললেন কামরান, ‘আমি মনে করি টিম ম্যানেজমেন্টের উচিত সব খেলোয়াড়ের সঠিক পরিচর্যা ও আত্মবিশ্বাস বাড়ানোয় নজর দেওয়া। শুধু পছন্দের ক্রিকেটারদের ওপর নজর দিলে সেটি ঠিক হবে না।’

মন্তব্য পড়ুন 0