বিরাট আর কোহলির কত বিশ্রামের দরকার হয়! টেস্ট ম্যাচে বিরাট কতক্ষণই বা ব্যাটিং করেছে
ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার কারসান ঘাউড়ি

অবশ্য ঘাউড়ির এমন প্রশ্ন তোলা একেবারে অযৌক্তিকও হয়তো নয়। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ঘরের মাঠের সিরিজে বিশ্রামে ছিলেন কোহলি। রোহিত করোনা পজিটিভ হওয়ায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এজবাস্টন টেস্টটিতে খেলেননি।

টানা খেলার ধকল এড়াতে খেলোয়াড়দের বিশ্রামের গুরুত্ব মেনে ভারতীয় দলে বিশ্রাম দিয়ে খেলানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, যে কারণে সাত সিরিজে সাত অধিনায়কের দেখাও মিলছে! ওয়েস্ট ইন্ডিজে ২২ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া তিন ওয়ানডের সিরিজে যেমন, শিখর ধাওয়ান হবেন ভারতের অধিনায়ক।

কিন্তু এভাবে বারবার কোহলি-রোহিতদের বিশ্রাম দেওয়াও পছন্দ হচ্ছে না কারসান ঘাউড়ির। ভারতের ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইট স্পোর্টসকীড়াতে ৭১ বছর বয়সী সাবেক অলরাউন্ডারের বিরক্তি প্রকাশ, ‘বিরাট আর কোহলির কত বিশ্রামের দরকার হয়! টেস্ট ম্যাচে বিরাট কতক্ষণই বা ব্যাটিং করেছে?’

এভাবে বিশ্রামের নামে সিরিজ বাদ দিয়ে খেলোয়াড়েরা বিজ্ঞাপনের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন অনুমান করে ঘাউড়ির উষ্মা, ‘ভারতের হয়ে খেলা ওদের কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাওয়া উচিত। বিজ্ঞাপনের কাজ থাকলে সেগুলো আইপিএলের সময়ই করুক, ভারতের হয়ে খেলার সময় নয়। ধকল সামলানোর নামে এভাবে বারবার বিশ্রাম নিতে পারে না ওরা!’

default-image

অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে আরও দুই সিনিয়র খেলোয়াড় যশপ্রীত বুমরা ও মোহাম্মদ শামিও থাকছেন না। দুই তরুণ হার্দিক পান্ডিয়া আর ঋষভ পন্তকেও বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে।

বিশ্রাম নিয়ে ক্ষোভ জানানোর পর কোহলির রানখরা নিয়েও কথা বলেছেন গাভরি। তাঁর বিশ্লেষণ, ‘খেলোয়াড়দের প্রতিভা আর ফর্মের বিচারেই দলে নেওয়া উচিত। বিরাটকে ভারতকে গর্ব করার মতো অনেক মুহূর্ত এনে দিয়েছে, তবে ও যদি ফর্মে না থাকে সে ক্ষেত্রে ওকে বাদ দেওয়া উচিত। ব্যাপারটা সহজ।’

আড়াই বছর ধরে সেঞ্চুরি না পাওয়া কোহলির সঙ্গে জো রুটের তুলনা টেনে গাভরির কথা, ‘যারা ফর্মে থাকবে তারাই দলে সুযোগ পাবে। বিরাট কোহলি অনেক বড় নাম ঠিকই, কিন্তু তার রান কোথায়? সুনামের ভিত্তিতে কতদিন খেলতে পারবে কেউ? ও এখনো ২৭ টেস্ট সেঞ্চুরিতে আটকে আছে, যেখানে কিছুদিন আগেও ওর চেয়ে পিছিয়ে থাকা জো রুট এখন ওকে পেরিয়ে গেছে!’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন