default-image

ক্রিকেটার নাসির হোসেন সম্প্রতি খবরের শিরোনামে ছিলেন অক্রিকেটীয় কারণে। এবার বিতর্ক পেছনে ফেলে মনোযোগটা ক্রিকেটে ফেরাতে চান একসময়ের জাতীয় দলের নিয়মিত এই ক্রিকেটার। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ঘরোয়া টুর্নামেন্ট জাতীয় লিগ দিয়ে প্রায় এক বছর পর ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছেন তিনি। আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে এ আসর।

হালে নিজের নামের সঙ্গে যে বিতর্ক জড়িয়ে গেছে, সেটিকে ঝেড়ে ফেলে জাতীয় লিগে নিজের পারফরম্যান্স ফেরাতে চান তিনি। ব্যাট হাতে হতে চান সেরা রান সংগ্রাহক। নিজ দল রংপুরকে জেতাতে চান জাতীয় লিগের শিরোপা।

বিজ্ঞাপন
default-image

আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে তিনি এই টুর্নামেন্টকে নিজের ফেরার টুর্নামেন্টই বলছেন, ‘এটা আমার ফেরার টুর্নামেন্ট। চেষ্টা থাকবে অন্তত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হওয়ার। যেহেতু ৬টা ম্যাচ, ৬ ম্যাচে যেন অন্তত ৮০০ বা হাজার রান করতে পারি। এটাই আমার চেষ্টা থাকবে।’

জাতীয় দলের ব্যস্ততায় দলের তারকা ব্যাটসম্যান লিটন দাস না থাকলেও নাসির নিজ দলের ভালোই সম্ভাবনা দেখছেন, ‘বরাবরই আমরা ভালো দল এবং ভালো খেলিও। প্রত্যেকবারই শিরোপার জন্য লড়াই করি। লিটন অবশ্যই আমাদের দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। তবে ও ছাড়াও ভালো ভালো খেলোয়াড় আছে।’

জাতীয় লিগের আগে ফিটনেস পরীক্ষায় তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন নাসির। কিন্তু তবু নিজের ফিটনেস নিয়ে সন্তুষ্ট নন তিনি। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের মানসিক ধাক্কা এখনো পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে পারেননি তিনি, ‘চোট এখনো আমার মাথা থেকে পুরোপুরি যায়নি। বলব না এখনো এক শ ভাগ ফিট। মনের মধ্যে ভয় কাজ করছে। চেষ্টা করছি শতভাগ ফিট হওয়ার জন্য। খেলার মাধ্যমেই ভয়টা কাটানো সম্ভব। খেলা আর জিম, রানিংয়ের মাধ্যমে পুরোপুরি চোটমুক্ত হওয়া সম্ভব।’

default-image

বিয়ে–সংক্রান্ত ঘটনা নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। বিতর্ক ছাপিয়ে ব্যাটিং-বোলিংয়ে মন দেওয়া এখন নাসিরের লক্ষ্য, ‘এটা ক্রিকেট মাঠ। এখানে খেলতে এলে আমার মাথায় বাইরের চিন্তা থাকে না। কোনো খেলোয়াড়েরই থাকে না। বাইরে যা–ই হোক না কেন, ব্যাটিং–বোলিং করার সময় এসব চিন্তা থাকে না। আমি যা-ই করেছি আইন অনুযায়ী করেছি।’

নিজের পারিবারিক জীবনে বিতর্ক ঢুকতে দিতে চান না নাসির, ‘হয়তো সংবাদ সম্মেলন ডেকে আপনাদের বিস্তারিত দেখিয়ে দেব। এটুকুই শুধু বলি, আমরা এতটা গাধা না যে ডিভোর্স না দিয়ে বিয়ে করব। আর কী বলব আমি... দেখুন, আমরা সব কাগজপত্র সেভাবে দেখাইনি। ২-৩ জন ইউটিউবার এসব নিয়ে খবর প্রচার করছে আর মানুষজন এতটাই অশিক্ষিত, একতরফাভাবে এসব শুনে মাতামাতি করছে।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন