বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে ১২ রানে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন মোস্তাফিজ। সিরিজের শেষ ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন তিনি। তবে আগের ম্যাচের পারফরম্যান্সেই দুই ধাপ এগিয়ে আট নম্বরে উঠে এসেছেন এই বাঁহাতি পেসার।

default-image

মোস্তাফিজের মতো চতুর্থ ম্যাচে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন নাসুমও। ২৫ ধাপ এগিয়ে ১৫ নম্বরে উঠে এসেছেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগে ৯১তম স্থানে ছিলেন অফ স্পিনার মেহেদী হাসান। শেষ ম্যাচের আগেই ২৪তম স্থানে উঠেছিলেন তিনি। সিরিজ শেষে আরও এগিয়ে এখন ২০ নম্বরে আছেন মেহেদী। টি-টোয়েন্টিতে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ২০-এর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে আছেন সাকিবও (৯)।

অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ে টি-টোয়েন্টিতে সাকিব শীর্ষস্থান ফিরে পেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া সিরিজে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন তিনি। এর আগে ২ ম্যাচে উইকেটশূন্য ছিলেন, ৪ ম্যাচে করেছেন ৪৫ রান। এমন পারফরম্যান্সের পর এক নম্বর থেকে দুইয়ে নেমে গেছেন তিনি। শীর্ষে উঠেছেন আফগানিস্তানের নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে ২৪তম স্থানে উঠে এসেছেন মোহাম্মদ নাঈম। একই রকম উন্নতি হয়েছে মাহমুদউল্লাহরও, বাংলাদেশ অধিনায়ক উঠে এসেছেন ২৯–এ। ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ২০-এ নেই বাংলাদেশের কেউ। নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক টম ল্যাথাম উঠেছেন ৪৪তম স্থানে, ওপেনার ফিন অ্যালেনের অবস্থান ৬৬-তে। দুই কিউই ব্যাটসম্যানেরই ক্যারিয়ারসেরা র‍্যাঙ্কিং।

default-image

অন্যদিকে শ্রীলঙ্কাকে ধবলধোলাই করা সিরিজে দারুণ পারফরম্যান্স করা কুইন্টন ডি কক চার ধাপ এগিয়ে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উঠে এসেছেন ৮ নম্বরে। ৩ ম্যাচের সিরিজে ১৫৩ গড়ে ১৫৩ রান করেছেন এই প্রোটিয়া উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান, ব্যাটিং করেছেন ১২১.৪২ স্ট্রাইক রেটে। সিরিজে ১১২ রান করা ডি ককের সতীর্থ রিজা হেন্ডরিকস ঢুকেছেন শীর্ষ ২০-এ। আর এইডেন মার্করাম ১২ ধাপ এগিয়ে উঠে এসেছেন ১১ নম্বরে।

টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে আগের মতোই শীর্ষস্থানে আছেন ইংল্যান্ডের ডেভিড মালান। বোলারদের এক নম্বর জায়গাটা দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার তাব্রাইজ শামসির।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন