বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের হয়ে সর্বশেষ গত জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ে সফরে খেলেছিলেন তামিম। এরপর হাঁটুর চোটের কারণে মাঠের বাইরে ছিলেন প্রায় দুই মাস।

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পারেননি হাঁটুর চোটের জন্য। দলে নিয়মিত না থাকায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল থেকেও নিজের নাম সরিয়ে নেন তিনি।

default-image

হাঁটুর চোট থেকে সুস্থ হয়ে নেপালের এভারেস্ট টি-টোয়েন্টি খেলতে যান তামিম। সেখানে গিয়ে আঙুলে চোট পান। সেই চোট তামিমকে এখনো ভোগাচ্ছে। ঘরের মাঠের পাকিস্তান সিরিজ আঙুলে চোটের কারণে খেলতে পারেননি।

৫০ ওভারের বিসিএল দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার কথা তামিমের, ৯ জানুয়ারি শুরু হওয়ার কথা এ টুর্নামেন্ট।

বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও বিসিএলে খেলার পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের সাইড স্ট্রেইনে চোট পান তিনি।

default-image

বিশ্রাম নিয়ে অনুশীলনে ফিরেছেন তিনিও। দেবাশীষ মোস্তাফিজের ব্যাপারে বলেছেন, ‘মোস্তাফিজ ৫০ ভাগ সক্ষমতা দিয়ে বোলিং করেছে। শর্ট রানআপ, গতি কম দিয়ে বোলিং করেছে। এরপর জিম সেশন করবে, পরদিন অনুশীলনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেবে। আপাতত বোলিংয়ের সময় ব্যথা পাচ্ছে না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন