বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

যাঁর ক্যারিয়ার যত লম্বা, অভিজ্ঞতা তত বেশি। সেই অভিজ্ঞতার কারণেই দলের কঠিন সময়ে হাল ধরতে পারেন সিনিয়র খেলোয়াড়েরা। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক হাফিজ আর মালিকের বয়স নিয়ে সমালোচনার তির ছোড়া সমালোচকদের সে বিষয়ই মনে করিয়ে দিয়েছেন দলটির সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম-উল-হক।

হাফিজের বয়স এখন ৪১ বছর, শোয়েবের ৪০ ছুঁইছুঁই। এখনো পাকিস্তান দলে খেলে যাচ্ছেন তাঁরা। সদ্য শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তাঁরা ছিলেন পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপের অন্যতম দুই স্তম্ভ। বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের মতো ব্যাটসম্যান থাকার পরও পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপে হাফিজ-শোয়েব আলাদা জায়গা নিয়ে আছেন। দলের নির্ভরতার জায়গাও তাঁরা।

default-image

খেলোয়াড়ি জীবন শেষে একটা সময়ে দলের প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব পালন করা ইনজামাম মনে করেন, কোনো খেলোয়াড়কে দল থেকে বাদ দেওয়ার আগে একটা বিষয় ভাবা খুবই গুরুত্বপূর্ণ; সেটা হচ্ছে যাঁকে বাদ দেবেন, তাঁর বিকল্প খুঁজে নেওয়া। হাফিজ আর শোয়েবের মতো খেলোয়াড়ের বিকল্প খুঁজে পাওয়া অত সহজ নয় বলেই মনে করেন ইনজামাম।

বয়স বেশি হলেই যে কোনো খেলোয়াড়কে দল থেকে বাদ দিতে হবে, এমন ধারণার সঙ্গে একমত নন ইনজামাম। বয়স যতই হোক না, ২৫ অথবা ৪০, কোনো খেলোয়াড়ের দলে থাকা আর দল থেকে বাদ পড়ার মাপকাঠি পারফরম্যান্সই হওয়া উচিত বলে জানিয়েছেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার। এআরওয়াই টিভিতে ইনজামাম বলেছেন, ‘এমন কোনো নিয়ম নেই যে কোনো খেলোয়াড়ের বয়স ৪০ বছর হয়ে গেলে সে আর দলে থাকতে পারবে না। মাপকাঠি হওয়া উচিত পারফরম্যান্স। ২৫ বছর বয়সী কোনো খেলোয়াড় যদি পারফর্ম করতে না পারে, তারও তো দল থেকে বাদ পড়া উচিত।’

default-image

হাফিজ আর শোয়েবকে বাদ দেওয়া বা না দেওয়ার প্রসঙ্গে ইনজামাম বলেছেন, ‘আপনার যদি কোনো খেলোয়াড়কে বাদ দিতে হয়, তাহলে তার বিকল্প খুঁজে বের করতে হবে। কাউকে দল থেকে বাদ দেওয়াটা সহজ কাজ। কিন্তু কঠিন ব্যাপার হচ্ছে মালিক বা হাফিজের মতো একজন খেলোয়াড়ের বিকল্প খুঁজে পাওয়া।’

এ প্রসঙ্গে এখানেই থামেননি ইনজামাম; হাফিজ-শোয়েবের অভিজ্ঞতার মূল্যও আলাদা করে দেখিয়েছেন তিনি, ‘ওদের বিকল্প যদি আপনার হাতে থাকে, তাহলে মালিক আর হাফিজকে বাদ দিতে পারেন। আর ওরা যদি ভালো খেলতে থাকে এবং টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করে দলের জন্য ওরা গুরুত্বপূর্ণ, তাহলে ওদের দলে রাখার সুবিধাটা নেওয়া উচিত। ওদের অভিজ্ঞতা অনেক এবং ওরা দুজনেই দলের অন্য খেলোয়াড়দের দিকনির্দেশনা দিতে পারে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন