বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

প্রস্তুতি ম্যাচ বলেই সর্বশেষ টেস্ট খেলা ইবাদত হোসেন ও খালেদ আহমেদকে দলে রাখা হয়নি আজ। টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে নামা বাংলাদেশের হয়ে নতুন বল হাতে পেয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ ও আবু জায়েদ চৌধুরী। তবু নিউজিল্যান্ড একাদশকে শুরুতেই কাঁপিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ।

নিউজিল্যান্ড একাদশে পরিচিত মুখ মাত্র দুজন—ডেভন কনওয়ে ও নিউজিল্যান্ডের উইকেটে প্রতিপক্ষের জন্য ত্রাস নিল ওয়াগনার। এর মধ্যে অধিনায়ক কনওয়েলকে ষষ্ঠ ওভারেই মাঠে নামতে হয়েছে। নিজের তৃতীয় ওভারে লুক জর্জসনকে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানিয়েছেন আবু জায়েদ। উইকেটে নেমেই অবশ্য ড্রেসিংরুমের দিকে ফিরতে হয়েছে কনওয়েকে। এক বল বিরতি দিয়েই আবার উইকেট তুলে নিয়েছেন জায়েদ। কনওয়েকে লিটন দাসের ক্যাচ বানিয়েছেন এই পেসার।

default-image

পরের ওভারেই লিটনের গ্লাভস আবার কাজে এসেছে। এবার তাসকিনের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন জ্যাকব কামিন্স।

বিনা উইকেটে ৮ রান থেকে ৩ উইকেটে ৮ রানে পরিণত হওয়া নিউজিল্যান্ড একাদশকে একটু স্বস্তি দিয়েছেন জ্যাক বয়েল ও মিচেল রেনউইক। এর ক্ষণিক পরই বৃষ্টি নামে। ৯.২ ওভারে খেলা থামার পর মধ্যাহ্নবিরতি পর্যন্ত আর মাঠে নামেনি দল।

তাসকিন ও আবু জায়েদের পর শরীফুল ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম কোনো সাফল্য এনে দিতে পারেননি। ৩০ রানের জুটি ভাঙতে তাসকিনকেই ফিরতে হয়েছে। ২০ রান করা বয়েলকে ফিরিয়েছেন তাসকিন। ২৬তম ওভারে আবার বৃষ্টি নামে।

default-image

বৃষ্টিবিরতি শেষেই অন্য প্রান্তে রেনউইককে (১৮) ফিরিয়েছেন আবু জায়েদ। ৬২ রানে পঞ্চম উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড একাদশ। এই দুজনও লিটন দাসের কাছে ক্যাচ দিয়েছেন। এর আগেই অবশ্য পালটা–আক্রমণ করেছেন জ্যাকব ভুলা।

বৃষ্টিতে দিনের খেলা শেষ হওয়ার আগে ২০ বলে ৫ চারে ২১ রান করেছেন ভুলা। ৪ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন তাঁর সঙ্গী মা’রা আভে। ২৭ রানে ৩ উইকেট পেয়েছেন আবু জায়েদ, ২৬ রানে ২ উইকেট তাসকিনের।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন