default-image

শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইন আপ কাল প্রায় অবিশ্বাস্য এক দৃশ্য দেখিয়েছে। টি-টোয়েন্টি পুরো ২০ ওভার ব্যাট করেও এক শ ছুঁতে পারেনি লঙ্কানরা। ৯ উইকেটে ৯৯ রান নিয়ে ইনিংস শেষ করেছে অস্ট্রেলিয়া সফররত দল। ২৩৪ রানের লক্ষ্য বড় এক বোঝা সেটা ঠিক, তবে শ্রীলঙ্কার এভাবে ভেঙে পড়ার পেছনে মূল ভূমিকা ছিল মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্সের।

অস্ট্রেলিয়ান দুই ফাস্ট বোলারের সামনে দুমড়েমুচড়ে গেছে লঙ্কান টপ অর্ডার। সে ধাক্কা সামলে ওঠা সম্ভব হয়নি পাকিস্তানকে কদিন আগেই ধবল ধোলাই করে আসা দলের। বুধবার সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগে অন্তত একটি স্বস্তি পাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। সে ম্যাচে থাকবেন না মিচেল স্টার্ক। দীর্ঘদেহী বাঁহাতি পেসারের ছোট ভাই যে সেদিনই বিয়ে করছেন। রিও অলিম্পিকের হাই জাম্পের ফাইনালে ওঠা ব্র্যান্ডন স্টার্কের (না, গেম অব থ্রোনসের সঙ্গে তাঁর কোনো সম্পর্ক নেই!) বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বৃহস্পতিবার দলের সঙ্গে যোগ দেবেন মিচেল।

অ্যাডিলেডে যেভাবে গতির ঝড় তুলেছেন স্টার্ক, তাতে দ্বিতীয় ম্যাচে একটু হলেও স্বস্তিতে থাকবে শ্রীলঙ্কা। কারণ, দ্বিতীয় ম্যাচ যে গতির স্বর্গ গ্যাবায়। তবে কামিন্স নিশ্চিত করেছেন, মিচেল স্টার্কের জায়গা পূরণ করার মতো অনেক সঙ্গীই আছে অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াডে। গতি ও বাউন্সের জন্য বিখ্যাত উইকেটে স্টার্কের জায়গা নেবেন ৭ ফুটের বেশি উচ্চতার বিলি স্টেনলেক। কামিন্স বাউন্সের ব্যাপারে আগেই নিশ্চিত করে রেখেছেন, ‘শর্ট বোলিং করা নিয়ে আমরা নিয়মিত কথা বলি। বিশেষ করে গ্যাবা বা অ্যাডিলেড, যেখানে গতি ও বাউন্স থাকে। আর আমাদের সব বোলারই ৬ ফুট চার বা পাঁচ ইঞ্চি লম্বা।’

স্টেনলেক ছাড়াও কেন রিচার্ডসন ও সন অ্যাবট আছেন দলে। প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিলেও প্রতিপক্ষ নিয়ে সতর্ক কামিন্স। ২০১৭ সালেও প্রথম ম্যাচে পাত্তা না পাওয়া লঙ্কানরা আসেলা গুনারত্নের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে পরের দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ জিতে নিয়েছিল। এবার আর তেমনটা হতে দিতে চান না কামিন্স, ‘ওরা খুবই ভালো দল। গতকাল ওদের খেলোয়াড় তালিকা দেখুন, বেঞ্চেও দেখুন। ওদের ভয়ংকর সব ব্যাটসম্যান আছে। শুধু গতকাল ফর্মে ছিল না তারা। ওদের নিয়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0