বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বিশ্বকাপের শুরুটাই থমকে দিয়েছে ভারতকে। প্রথমবারের মতো বিশ্বমঞ্চে পাকিস্তানের কাছে হেরেছে ভারত, সেটাও ১০ উইকেটের ব্যবধানে। ভারতের টপ অর্ডারকে ধসিয়ে দিয়েছিলেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। পরের ম্যাচেই নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে ভারত। আর এতেই বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ে যাওয়া নিশ্চিত হয়ে যায় ভারতের।

default-image

ভারতের ক্রিকেটাররা আইপিএল ছাড়া অন্য কোনো লিগ খেলেন না। ওয়াসিম আকরামের ধারণা, এ কারণে বিভিন্ন ধরনের বোলিং সামলানোর ক্ষমতায় ঘাটতি থেকে যাচ্ছে ভারতের, ‘আপনি যখন বিভিন্ন দেশের লিগে খেলেন, একটা বা দুটোই হোক, আমি বলছি না সব লিগ খেলতে হবে; এতে আপনার খেলোয়াড়ের অন্য বোলারদের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা হবে। ভিন্ন উইকেট, ভিন্ন দল, ভিন্ন কন্ডিশনে খেলার অভ্যাস হবে।’

‘স্পোর্টস থ্রি সিক্সটি’র সঙ্গে কথোপকথনে আকরাম তাই বলছেন, ভারতকে তাদের নিয়ম নিয়ে নতুন করে ভাবতে, ‘আমার ধারণা, ভারতের আবার ভাবা দরকার। আইপিএল বিশ্বের ১ নম্বর লিগ, অর্থের দিক থেকে, প্রতিভার দিক থেকে; সেটা ঠিক আছে। কিন্তু ওদের উচিত বিশ্বের অন্য এক বা দুটি লিগেও খেলোয়াড়দের যাওয়ার সুযোগ দেওয়া উচিত।’

default-image

পাকিস্তানের বিপক্ষে হারের পেছনেও নাকি অন্য লিগে না খেলাটা ভূমিকা রেখেছে। পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা বিশ্বের সব টি-টোয়েন্টি লিগেই খেলেন, শুধু আইপিএলেই সুযোগ মেলে না তাঁদের। ওদিকে ভারতের ক্রিকেটাররা শুধু আইপিএলই খেলেন। ফলে দুই দেশের ক্রিকেটাররা কখনো মুখোমুখি হন না। আকরামের চোখে এটাই ভারতের সর্বনাশ ডেকে এনেছে, ‘বিশ্বকাপে ফেবারিট ছিল ভারত। আমার ধারণা, প্রথম ম্যাচের পর, বিশেষ করে শাহিন আফ্রিদির প্রথম ওভারের ধাক্কা ওরা কাটিয়ে উঠতে পারেনি। তখনই কিন্তু সবাই বলছিল, আইপিএলে বেশি জোর দেয় ওরা, ওদের খেলোয়াড়েরা অন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের বিপক্ষে অন্য লিগে খেলে না। এটা সত্য কারণ, পাকিস্তান ও ভারত এখন খেলে না বললেই চলে; খুব কম খেলোয়াড়ই শাহিন, হারিস রউফ বা হাসান আলীকে খেলেছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন