বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে বলেছেন, ভারত–পাকিস্তান ম্যাচে যে দলের খেলোয়াড়েরা চাপটা ভালোভাবে সামলাতে পারবে, সে দলেরই জয়ের সম্ভাবনা বেশি থাকবে। রিজওয়ান হয়তো চাপটা দূরে সরিয়ে রাখতে আগে থেকেই এ ম্যাচটিকে স্বাভাবিক একটা ম্যাচ বা আর দশটা ম্যাচ হিসেবে দেখছেন। ২৪ অক্টোবরের ম্যাচ নিয়ে পাকিস্তানের উইকেটকিপার–ব্যাটসম্যানের কথা, ‘এটা অন্য সব ম্যাচের মতোই আরেকটা ম্যাচ।’

ভারত–পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তাহলে এত উত্তেজনা কেন ছড়াচ্ছে! এ বিষয়ে রিজওয়ানের কথা, ‘এবারের ভারত–পাকিস্তান ম্যাচকে আর সব ম্যাচের মতোই দেখব আমরা। এটা নিয়ে যত মাতামাতি, তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আর সমর্থকদের তৈরি।’ এর জন্য অবশ্য কাউকে দোষ দিচ্ছেন না রিজওয়ান। কিন্তু সতীর্থদের শান্ত থাকার পরামর্শই হয়তো দিতে চেয়েছেন, ‘এটা ভালো। কিন্তু আমরা যারা খেলোয়াড়, তাদের মনে রাখতে হবে যে এটা অন্য যেকোনো দলের বিপক্ষে খেলা একটি ম্যাচের মতোই।’

default-image

মূল কথাটি রিজওয়ান এরপরই বলেছেন, ‘আমরা খেলোয়াড়েরা যদি এ ম্যাচের জন্য বাড়তি চাপ নিই, তাহলে সেটা দলের জন্য ভালো হবে না। এমনটা আমরা অতীতেও দেখেছি।’ ম্যাচটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে। বছরের পর বছর যেখানে প্রচুর ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তান। এটা পাকিস্তানের জন্য বাড়তি সুবিধা কি না, এ প্রশ্নের উত্তরে রিজওয়ান বলেছেন, ‘পাকিস্তান বা যেকোনো দলই সংযুক্ত আরব আমিরাত বা অন্য কোনো ভেন্যুতে বাড়তি সুবিধা পাওয়ার বিষয়টিতে আমার বিশ্বাস নেই।’

default-image

রিজওয়ান এরপর বলেছেন, ‘এটা ঠিক যে আমরা সেখানে অনেক ম্যাচ খেলেছি। সংযুক্ত আরব আমিরাতকে আমাদের ঘরের মাঠ বলা হয়। তবে এখানে আমরা বিশেষ কোনো সুবিধা পাব বলে মনে হয় না।’ সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তান কেন বাড়তি কোনো সুবিধা পাবে না, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন রিজওয়ান, ‘এখানকার পিচ বানানো হয় অস্ট্রেলিয়া বা বিশ্বের অন্য কোনো দেশের মাটি দিয়ে। তাই সংযুক্ত আরব আমিরাতকে আমাদের ঘরের মাঠ বলা হলেও তেমন কোনো সুবিধা আমাদের জন্য থাকবে না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন