অস্ট্রেলিয়ার সাবেক পেসার ব্রেট লি।
অস্ট্রেলিয়ার সাবেক পেসার ব্রেট লি।ছবি: টুইটার

উত্তরসূরিরা সাধারণত পূর্বসূরিদের পথে হাঁটেন। কিন্তু ব্রেট লি হাঁটলেন উত্তরসূরির দেখানো পথে। উত্তরসূরি প্যাট কামিন্সের দেখানো পথে হাঁটলেন পূর্বসূরি লি।

করোনাভাইরাস মহামারিতে ভারতজুড়ে মৃত্যুর মিছিল চলছে। অক্সিজেনের চরম সংকট চলছে সেখানে। দেশটির সংবাদমাধ্যম কাল জানায়, ভারতের হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেনের সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ৫০ হাজার ডলার (প্রায় ৪২ লাখ টাকা) দান করেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের অস্ট্রেলিয়ান পেসার কামিন্স।

আজ জানা গেল, অস্ট্রেলিয়ার সাবেক পেসার ব্রেট লি-ও ভারতের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ভারতে সংক্রমিতদের অক্সিজেনের অভাব মোচনে তিনি দান করবেন ১টি বিটকয়েন।

বিজ্ঞাপন

ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েন ক্রিপ্টোকারেন্সি নামে পরিচিতি পেয়েছে। এখনো অনেক দেশে মুদ্রা হিসেবে স্বীকৃতি না পেলেও দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে বিটকয়েন।

সে যা–ই হোক, টুইটারে এক পোস্টে লি নিজেই সাহায্যের কথা জানান, ‘ভারত সব সময়ই আমার দ্বিতীয় ঘর। পেশাদার ক্যারিয়ার এবং তারপর আমি এখানকার মানুষের যে ভালোবাসা পেয়েছি—আমার হৃদয়ে সব সময়ই বিশেষ জায়গা পেয়েছে। এই মহামারিতে তাঁদের ভোগান্তি দেখে কষ্ট পাচ্ছি। পার্থক্য গড়ে দেওয়ার মতো অবস্থায় থাকতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি। আর তাই ক্রিপ্টো রিলিফে ১টি বিটকয়েন দান করে ভারতের হাসপাতালগুলোর অক্সিজেন কেনায় সাহায্য করতে চাই।’

এই পোস্টে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলাচলের জন্য পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি প্যাট কামিন্সকেও ধন্যবাদ জানান খেলোয়াড়ি জীবনে গতির ফুলকি ছোটানো পেসার, ‘কাল উদ্যোগটা নিয়ে ভালো করেছ প্যাট কামিন্স।’

ভারতীয় মুদ্রায় একটি বিটকয়েনের বর্তমান মূল্যমান প্রায় ৪১ লাখ রুপি। করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভীষণভাবে বিপর্যস্ত সময় পার করছে ভারত। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৩ লাখ ২৩ হাজার মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন।

মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ৭০০ ছাড়িয়ে গেছে। হাসপাতালগুলো প্রকট অক্সিজেন সংকটে ভুগছে। এ কারণে নতুন করে সংক্রমিতদের অনেকে হাসপাতালে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না পেয়ে মারা যাচ্ছেন।

আইপিএলের প্রথম বিদেশি ক্রিকেটার হিসেবে ভারতে করোনায় আক্রান্তদের জন্য অক্সিজেন সরবরাহে সাহায্য করেন কামিন্স। লি আইপিএলে ধারাভাষ্যকার ও বিশ্লেষক হিসেবে কাজ করছেন। এর আগে কামিন্স বাকি ক্রিকেটারদেরও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

এরপরই ব্রেট লি সাহায্যের ইচ্ছা প্রকাশ করলেন। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ভারতীয়দের সাবধান থাকার পরামর্শও দেন লি, ‘সবাইকে অনুরোধ করছি ঘরে থাকুন, হাত ধোয়ার অভ্যাস করুন, নিতান্তই দরকার না হলে বাইরে যাবেন না। মাস্ক পরিধান করে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুন।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন