দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ডেল স্টেইন।
দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ডেল স্টেইন।ছবি: টুইটার

কলকাতা নাইট রাইডার্স এখন পর্যন্ত আইপিএলে ম্যাচ খেলেছে ৬টি। দলটির তরুণ পেসার শিবম মাভি এর মধ্যে দুটি ম্যাচেই একাদশে জায়গা পেয়েছেন। ওই দুই ম্যাচে খুব আহামরি কিছু করতে পারেননি। তবে ২২ বছর বয়সী পেসার দুই ম্যাচে নিয়েছেন ২টি উইকেট।

কাল পাঞ্জাব কিংসের বিপক্ষে কলকাতার ৫ উইকেটের জয়ে নিয়েছেন একটি উইকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইলকে ফিরিয়েছেন কোনো রান করতে না দিয়েই। সব মিলিয়ে ৪ ওভার বল করে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ওই উইকেটটি পেয়েছেন মাভি।

সুযোগ পাওয়া আরেক ম্যাচেও খুব কিপ্টে বোলিং করেছেন ভারতের তরুণ পেসার। রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে কলকাতা না জিতলেও বল হাতে ইনিংস ওপেন করা মাভি ৪ ওভারে ১ উইকেট নিয়েছেন মাত্র ১৯ রানে। তাঁর বোলিংয়ে রীতিমতো মুগ্ধ অনেকেই। তাঁকে জশপ্রীত বুমরা, ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামিদের অন্যতম উত্তরসূরিও ভাবতে শুরু করেছেন অনেকে।

বিজ্ঞাপন

মাভিতে মুগ্ধ দক্ষিণ আফ্রিকার ফাস্ট বোলার ডেল স্টেইনও।প্রোটিয়া বোলার অবশ্য মুগ্ধ মাভির কথা শুনে। স্টেইন মাভির কথায় এতটাই মুগ্ধ হয়েছেন যে তাঁর চোখে পানিই এসে গেছে। তা কলকাতা নাইট রাইডার্সের ভারতীয় পেসার কী এমন বলেছেন যে সেটা শুনে স্টেইনের চোখে পানি চলে এসেছে? মাভির কোন কথা শুনে তাঁর চোখে আনন্দাশ্রু?

ক্রিকেট–বিষয়ক খবরের ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মাভির কথা শুনে আনন্দে কেঁদে দেওয়ার কথা বলেছেন স্টেইন। মাভি স্টেইনকে আদর্শ মেনে বড় হয়েছেন এবং ভবিষ্যতে তাঁরই মতো বোলার হতে চান—এটা শুনেই আনন্দে ভেসে যাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে ৬৯৯ উইকেট পাওয়া স্টেইন।

ক্রিকইনফোকে স্টেইন বলেছেন, ‘সত্যি বলছি, এটা অসাধারণ। আমার চোখে তো পানিই চলে এসেছে। বিশ্বের অন্য এক প্রান্তের মানুষের ওপরে প্রভাব ফেলতে পারব, আমি কখনোই এই লক্ষ্য নিয়ে ক্রিকেট খেলিনি।’

ভবিষ্যতে স্টেইনের মতো আউটসুইং বোলিংটা ভালোভাবে রপ্ত করতে চান, এমনটাই বলেছেন মাভি। এটা শুনে স্টেইনের কথা, ভারতীয় এই পেসারকে নিয়ে ভবিষ্যতে কাজ করার ইচ্ছা আছে তাঁর। যেকোনো সময় মাভির দরজা স্টেইনের পরামর্শের জন্য খোলা বলেও জানিয়েছেন প্রোটিয়া ফাস্ট বোলার।

ক্রিস গেইলকে আউট করা এবং মাভির ভবিষ্যৎ নিয়ে স্টেইন বলেছেন, ‘আমি মনে করি, সে আরেকটু এগিয়ে যেতে পারে। আর এ ধরনের পারফরম্যান্স তাকে দলে সুযোগ পেতে সাহায্য করবে। হয়তো ভারত দলেও সুযোগ এনে দেবে। কেকেআরের হয়ে আরও বড় ভূমিকা রাখতেও সাহায্য করবে। কখনো না কখনো আমি তার সঙ্গে দেখা করতে চাই। আমি তাকে পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করতে চাই।’

default-image

মাভি স্টেইনের প্রশংসা করতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘আমি ক্রিকেট খেলাটা শুরু করার পর থেকেই ডেল স্টেইনকে খুব কাছ থেকে অনুসরণ করে অভ্যস্ত। ক্যারিয়ারের শুরুতে আমি আউটসুইং বল করেও অভ্যস্ত ছিলাম। এ কারণেই স্টেইনকে অনুসরণ করতাম। বুমরা আর ভুবিকেও অনুসরণ করি আমি। তবে এখনো আমার আদর্শ স্টেইনই।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন