বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ম্যাচ না পেছাতে পারলেও ওই আইনজীবীর বিকল্প অনুরোধ ছিল, ম্যাচে শতভাগ দর্শক না রেখে অন্তত ৫০ শতাংশ আসন যেন ফাঁকা রাখা হয়। কিন্তু ঝাড়খন্ড ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (জেএসসিএ) পাল্টা যুক্তির পর সে আবেদনও ধোপে টেকেনি।

জেএসসিএর পাল্টা যুক্তি ছিল, স্টেডিয়ামে করোনাবিষয়ক স্বাস্থ্যবিধির সবই মেনে চলা হবে। ম্যাচের আয়োজন একটা আন্তর্জাতিক ব্যাপার এবং ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজনের সব ব্যবস্থাই এরই মধ্যে নেওয়া হয়ে গেছে, এই যুক্তিতে প্রধান বিচারপতি ড. রবি রঞ্জন ও বিচারপতি সুজিত নারায়ণ প্রসাদের গঠিত বেঞ্চ আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

হিন্দুস্তান টাইমস জানাচ্ছে, বিচারকদের বেঞ্চ এই আবেদনের ব্যাপারে জানতে পেরেছেন স্থানীয় সময় বিকাল ৫টায়, অর্থাৎ দিনের কার্যসময় শেষ হওয়ার পর। তার পরও দুই ঘণ্টা ধরে আবেদনের শুনানি হয়েছে।

default-image

আবেদনকারী ধীরজ কুমারের পক্ষে আইনজীবী রিতু কুমার যুক্তি উপস্থাপন করেন, করোনা সংক্রমণ এখন অনেক কম থাকলেও মহামারি এখনো একেবারে শেষ হয়নি। এমন অবস্থায় শতভাগ দর্শকপূর্ণ গ্যালারি থাকা কতটা যুক্তিযুক্ত, সে প্রশ্ন তোলেন রিতু কুমার। মন্দির, আদালত এবং অন্য অফিসগুলোও ৫০ শতাংশ লোকসমাগমে চলছে বলে যুক্তি দেখান তিনি। পাল্টা যুক্তিতে জেএসসিএর পক্ষে একে দাস বলেন, দর্শকদের স্টেডিয়ামে থাকার পুরো সময়ে মাস্ক পরতে বাধ্য করা হবে।

‘শতভাগ পূর্ণ গ্যালারি’ রাখার ব্যাপারে রাজ্য সরকারের সবুজ সংকেতের পরই জেএসসিএ দর্শকদের জন্য গ্যালারি খুলে দিয়েছে। এই ম্যাচে শতভাগ দর্শক থাকবেন বলেও আশা জেএসসিএর। প্রথমে অবশ্য ৫০ শতাংশ দর্শকের অনুমতিই পেয়েছিল জেএসসিএ। কিন্তু পরে সিদ্ধান্ত বদলে শতভাগ আসনই দর্শকের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

রাজ্য সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী, শুধু টিকার দুই ডোজ পাওয়া অথবা আরটি-পিসিআর টেস্টে করোনা নেগেটিভ সনদ পাওয়া দর্শকই ম্যাচের টিকিট কিনতে পারবেন।

default-image

ঝাড়খন্ডের এই মাঠে দর্শক ধারণক্ষমতা ৩৮ হাজার। তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয়পুরে ৫ উইকেটে জিতেছে ভারত। জয়পুরের সেই ম্যাচেও দর্শকসংখ্যায় কোনো বিধিনিষেধ ছিল না।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর সেই ম্যাচ দিয়েই ভারতের নতুন যুগের সূচনা হয়েছে। বিশ্বকাপের পর ভারতের কোচের পদে বদল এসেছে, রবি শাস্ত্রীর বদলে ভারতের কোচ এখন ব্যাটিং কিংবদন্তি রাহুল দ্রাবিড়। ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্বেও বদল এসেছে।

বিরাট কোহলি বিশ্বকাপের পর ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক থাকবেন না, সেটা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন। সে জায়গায় এখন ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

এই সিরিজে কোহলি বিশ্রামে আছেন। নিউজিল্যান্ড দলের নিয়মিত অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনও এই সিরিজে খেলছেন না। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত গ্রুপ পর্বেই বিদায় নিয়েছিল, নিউজিল্যান্ড হয়েছে রানার্সআপ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন