default-image

দুই মৌসুম ধরেই উইল পুকোভস্কির নামটা বেশ জোরেশোরে শোনা যাচ্ছিল। অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়া রাজ্য দলের হয়ে নিয়মিতই রান করেছেন শেফিল্ড শিল্ড ম্যাচে। পুরস্কার হিসেবে ২০১৯ সালে শ্রীলঙ্কা সিরিজের টেস্ট দলে সুযোগও পেয়েছিলেন। কিন্তু খেলা হয়নি কোনো ম্যাচ। এরপর তো তাঁকে মানসিক সমস্যা থেকে সেরে উঠতে সময় দিতে দল থেকে বাদও দিয়ে দেন অস্ট্রেলীয় নির্বাচকেরা।

সেই পুকোভস্কি এবার শেফিল্ড শিল্ডে টানা দুই ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করে আবারও আলোড়ন তোলেন। আর রানটা কী সময়েই না করেছেন ২২ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলীয় নির্বাচকেরা যখন ব্যস্ত ভারত সিরিজের দল সাজাতে, তখনই পুকোভস্কির ব্যাটে রানবন্যা। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়ে ভারত সিরিজের দলে সুযোগও পেয়ে গেলেন। স্বাভাবিকভাবেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পুকোভস্কিকে নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা।

বিজ্ঞাপন

এত আলোচনা না আবার মনোযোগ সরিয়ে দেয়—এই ভয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকেই পুকোভস্কি নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, ‘আমি শুধু নিজের প্রস্তুতি আর মাঠে কী করতে পারি, সেটাই নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। আমি যেন অনুভব করতে পারি, আমার ব্যাটিং ভালো জায়গায় আছে। আমি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেই। কাজটা সহজ হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে না থাকলে। আমাকে টুইটারে কেউ ট্যাগ করবে না যদি আমার অ্যাপ না থাকে। আমার জন্য খুব কঠিন ছিল না।’

২২টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে পুকোভস্কি ৫৫.৪৮ গড়ে ১৭২০ রান করে ফেলেছেন। প্রথম শ্রেণিতে ৬টি সেঞ্চুরি তাঁর, যার ৩টিই আবার ডাবল সেঞ্চুরি। সর্বোচ্চ অপরাজিত ২৫৫ রানের ইনিংসটা এ মাসের শুরুতে সাউথ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেছেন পুকোভস্কি। পরের ম্যাচে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০২ রানে থামেন তিনি। এমন পারফরম্যান্স দিয়েই ভারতের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে পুকোভস্কি। সঙ্গে আরেক তরুণ অলরাউন্ডার ক্যামেরন গ্রিনকেও সুযোগ দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

default-image

পুকোভস্কি অস্ট্রেলিয়ার ১৭ সদস্যের দলে সুযোগ পাওয়ায় ঘরের মাঠে গত গ্রীষ্মে ওপেন করা জো বার্ন আছেন চাপে। এবারের শিল্ড মৌসুমের শুরুও ভালো হয়নি বার্নের। তবে এখন পর্যন্ত প্রধান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার আছেন বার্নের পাশে, ‘সে দারুণ পারফর্ম করছে, তাই নয়? কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত ওয়ার্নার ও বার্নের জুটি পছন্দ করে এসেছি। এখন পর্যন্ত বলতে পারি, এই দুজনই খেলবে ওপেনার হিসেবে।’

এদিকে সফরকারী ভারত আজ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুশীলন শুরু করেছে। দুই দিন আগে সিডনি পৌঁছানো ভারতীয় দলের প্রত্যেকেই করোনা নেগেটিভ ফল পাওয়ায় আজ থেকে অনুশীলন করতে বাধা নেই কোহলিদের। ২৭ নভেম্বর শুরু সিরিজে প্রথমেই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এরপর তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে চার টেস্টের বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0