ভালো বোলিংয়েও আক্ষেপ রেখে গেল ক্যাচ মিস।
ভালো বোলিংয়েও আক্ষেপ রেখে গেল ক্যাচ মিস।ছবি: এএফপি

মধ্যাহৃভোজ বিরতির আগে শিকারহীন বাংলাদেশ দল। সেজন্য নাজমুল হোসেন শান্তকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে পারেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

সকাল থেকেই ভালো বল করছিলেন তাসকিন আহমেদ। ২০তম ওভারে তাঁর শেষ বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছিলেন আগের টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। শক্ত হাতে ক্যাচ নেওয়ার চেষ্টা করে পারেননি নাজমুল। কঠিন কোনো ক্যাচ ছিল না। স্লিপ ফিল্ডারদের জন্য রুটিন ক্যাচ।

কিন্তু তা ধরতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে মধ্যাহভোজন বিরতিতে যেতে হয় বাংলাদেশ দলকে। পাল্লেকেলেতে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে আজ প্রথম দিনে প্রথম সেশন শেষে বিনা উইকেটে ৬৬ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। ৩২ রানে অপরাজিত করুনারত্নে। সতীর্থের সমান (৩২) রান নিয়ে অন্য প্রান্ত আগলে রেখেছেন আরেক ওপেনার লাহিরু থিরিমান্নে।

default-image
বিজ্ঞাপন

টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে আঁটসাঁট বোলিং শুরু করেন বাংলাদেশের বোলাররা। অভিষিক্ত শরিফুল ইসলাম শুরু থেকে সিম মুভমেন্ট পেয়েছেন। শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনারকেই মাঝে–মধ্যে পরাস্ত করেছেন।

তাসকিন গতি ও বাউন্সের মিশেলে সুযোগ সৃষ্টি করেছেন মাঝে–মধ্যে। বিশেষ করে থিরিমান্নেকে বেশ কয়েকবার বিপদে ফেলেছেন তিনি। তবে মুমিনুলের বোলারদের ব্যবহার করার কৌশল নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। তিন পেসার ও দুই স্পিনার নিয়ে মাঠে নেমেছেন তিনি।

default-image

তাসকিন ও আবু জায়েদকে দিয়ে প্রথম ৪ ওভার করিয়ে পরের ওভারেই মেহেদী হাসান মিরাজকে বোলিংয়ে নিয়ে আসেন মুমিনুল। এই স্পিনারকে দিয়ে দুই ওভার করিয়ে আবারও বোলার পাল্টান মুমিনুল। আক্রমণে নিয়ে আসেন শরিফুলকে।

প্রথম ১০ ওভারের মধ্যেই চার বোলার ব্যবহার করেন তিনি। টেস্টে বোলারদের লাইন–লেংথ ঠিক করতেও তো খানিকটা সময় লাগে! টি–টোয়েন্টি ক্রিকেটেও এভাবে এত দ্রুত বোলার পাল্টানো হয় কি না, সন্দেহ!

পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় টেস্টের উইকেটে ঘাস সেভাবে নেই। অর্থাৎ অন্তত দুই দিন যাওয়ার পর পিচে ভাঙন শুরু হওয়ার কথা। সে ক্ষেত্রে শেষ তিন দিনে স্পিনারদের সুবিধা পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

আজ প্রথম দিনে অবশ্য সকালের সেশনে পিচ থেকে ভালো সুবিধা পেয়েছেন পেসাররা। সিম মুভমেন্টের সঙ্গে বল তুলতে সমস্যা হয়নি পেসারদের। কিন্তু নাজমুল ক্যাচটা নিতে পারলে পেসাররা অন্তত খুশি মনে মধ্যাহৃভোজ বিরতিতে যেতে পারতেন।

সাম্প্রতিক সময়ে ক্যাচ ছাড়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশ দলের ফিল্ডারদের মধ্যে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ থেকে নিউজিল্যান্ড সফর এবং শ্রীলঙ্কায় প্রথম টেস্টেও ক্যাচ ছেড়েছেন ফিল্ডাররা।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন