default-image

দাবিটা খুবই অদ্ভুত এবং চমকে দেওয়ার মতো। ধরুন, আপনি ইংল্যান্ড দলের সমর্থক। তাদের কোনো ক্রিকেটার অবসর নেওয়ার পর একদিন বেনামে বোমাটা ফাটালেন। তিনি ইংল্যান্ডের হয়ে মাঠে নেমে নিজের সর্বস্বই নিংড়ে দিয়েছেন। কিন্তু হৃদয়ের ভেতর ছিল অন্য এক জাতীয় দল। এখানেই শেষ নয়। মনে মনে তিনি ইংল্যান্ডের হারও কামনা করতেন!

বিজ্ঞাপন

ভ্রুকুটির আগে পুরোটা শুনুন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ‘কনফেশন’ পেজগুলো ভীষণ জনপ্রিয়। এসব পেজে লোকে নিজের নাম লুকিয়ে জীবনের নানা গোপন বিষয় বা ঘটনা প্রকাশ করে থাকে। নানা রকম ভুল কিংবা যা আগে কখনো বলা হয়নি, কেউ জানে না—সেসব গোপন কথা এসব কনফেশন পেজে প্রকাশ করে অনেকে ভারমুক্ত হওয়ার চেষ্টা করেন।

টুইটারে ‘ফেসহোল’ (fesshole) ঠিক তেমনই এক কনফেশন পেজ। ভালোই জনপ্রিয়, অনুসারীর সংখ্যা ৯০ হাজারের বেশি। এ পেজেই কালকের একটি টুইট চমকে দিয়েছে সবাইকে।

ফেসহোলে যে কারও টুইটেই নাম গোপন রাখা হয়। কাল এমনই এক টুইটে লেখা হয়, ‘আমি একজন সাবেক পেশাদার ক্রিকেটার। ইংল্যান্ডের হয়ে অনেক ম্যাচ খেলেছি। তাদের হয়ে নিজের সেরাটাই দিয়েছি, এটা আমার দায়িত্ব ছিল। কিন্তু খুব ভালোবাসা নিয়েই অন্য একটি দলকে সমর্থন করি আর গোপনে সব সময় ইংল্যান্ডের হার কামনা করে এসেছি।’

টুইটটি ১৪৭ বার রিটুইটের পাশাপাশি মন্তব্য করেছেন ১৪৯ জন। সাবেক এ ক্রিকেটার কে হতে পারেন, তা নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা। সম্ভাব্য হিসেবে কেভিন পিটারসেনের নাম বলেছেন অনেকে। দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম নেওয়া পিটারসেনের সঙ্গে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) সম্পর্ক শেষ দিকে তিক্ততায় ভরপুর ছিল।

বিজ্ঞাপন

মূলত ইংল্যান্ড জাতীয় দলে খেলেছেন কিন্তু জন্ম ইংল্যান্ডের বাইরে—এমন ক্রিকেটারদের নামই বেশি উঠে এসেছে। এউইন মরগান, ওয়াইজ শাহ, নিক কম্পটন, বয়েড র‌্যাঙ্কিনদের পাশাপাশি গ্যাভিন হ্যামিল্টন ও জ্যাসন গ্যালিয়ানদের নামও উল্লেখ করেছেন অনেকে। তাঁরা সবাই জন্মেছেন ইংল্যান্ডের বাইরে।

মন্তব্য পড়ুন 0