default-image

পশ্চিমবঙ্গের এবারের বিধানসভা নির্বাচনে সিনে তারকাদের ঢল নেমেছিল। তৃণমূল কংগ্রেস আর বিজেপি—দুই দলেই ছিল অভিনয়জগতের তারকারা। তাঁদের কেউ জিতেছেন, কেউ হেরেছেন। কিন্তু ক্রিকেটের ময়দান থেকে দুই দলের পতাকাতলে গিয়ে নির্বাচন করা দুই ‘তারকা’ই জয় নিয়ে ফিরেছেন। কালই জানা গিয়েছিল তৃণমূলের টিকিট নিয়ে জিতে গেছেন মনোজ তিওয়ারি। আজ জানা গেল, কাল ভোট গণনার সময় অনেকটা সময় পিছিয়ে থাকা সাবেক পেসার অশোক দিন্দাও জিতেছেন বিজেপি থেকে।

দিন্দার রাজনীতিতে আগমনটা খুব সুখের হয়নি। বিজেপিতে যোগ দিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে দলীয় টিকিট পাওয়ার পরপরই দুষ্কৃতকারীদের হামলার শিকার হয়েছিলেন। নিজের নির্বাচনী এলাকায় প্রচারে গিয়ে ইটের আঘাত সইতে হয়েছে তাঁকে। ইট মেরে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল তাঁর গাড়ির কাচ। অভিযোগ উঠেছে অভিনেত্রী ও লোকসভায় তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহানের সমর্থকেরাই দিন্দার ওপর এ হামলা চালিয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু এত কিছুর পরও তিনি অবিচল থেকেছেন নিজের লক্ষ্যে। ভয়ভীতি উপেক্ষা করে প্রচার চালিয়ে গেছেন। কাল ঘোষিত ফলে বিষাদে হরিশ তাঁর দল বিজেপি বিপুল ব্যবধানে তৃণমূলের কাছে হেরে গেলেও দিন্দা ঠিকই জিতেছেন।

দিন্দা মোট ভোট পেয়েছেন এক লাখের বেশি। নিকটতম তৃণমূল প্রার্থীর সঙ্গে তাঁর হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। ভোটের ব্যবধান ১৪০৯। ভোট গণনার সময় কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। সে কারণেই ব্যালট গুণতে দেরি হয়েছে।

মনোজ তিওয়ারি জিতেছেন কঠিন একটি আসন থেকে। তৃণমূলের প্রার্থী বাংলার এই ক্রিকেটারকে সেই আসনে প্রার্থী করা হয়েছিল দীর্ঘদিনের বিধায়ককে বাদ দিয়ে। তাই রাজনীতিতে অনভিজ্ঞ মনোজের বিজয় নিয়ে তাই সংশয় ছিল। তবে চিরদিনের লড়াকু ব্যাটসম্যান সেই সংশয় উড়িয়েছেন দারুণ পারফরম্যান্স দিয়েই।

দিন্দা-মনোজ দুজনই ভারত দলে খেলেছেন। দুই ক্রিকেটারই আইপিএল খেলেছেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। প্রথমজন খেলেছেন ১৩ ওয়ানডে, দ্বিতীয়জন ১২ ওয়ানডে। মনোজের একটা সেঞ্চুরিও আছে। দিন্দার উইকেট ১২টি। ভারতের জার্সিতে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিও খেলেছেন নবনির্বাচিত এই দুই ক্রিকেটার-বিধায়ক।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন