বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

তাসকিনও মাশরাফির সামনে বোলিং করলেন। স্টাম্পের সামনে ক্যাপ রেখে তাসকিনকে স্পট বোলিংয়ের অনুশীলন করতে বলেন মাশরাফি। সাবেক অধিনায়কের দেওয়া চ্যালেঞ্জ উতরেও যান তিনি। উইকেটের সামনে রাখা ক্যাপের পাশ ঘেঁষে বল করতেই তাসকিনকে হাততালি দিয়ে প্রশংসায় ভাসান বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক।

মাশরাফির সঙ্গে বোলিং কৌশল নিয়ে কাজ করার ব্যাপারটি নিজেই ব্যাখ্যা করলেন তাসকিন, ‘ভাইয়াকে বলেছিলাম এক দিন সময় দেওয়ার জন্য। স্লোয়ারটা নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছিলাম তাঁর সঙ্গে। তিনি কিছু কাটারের গ্রিপ বলে দিলেন। অবশ্য এটাও বলে দিয়েছেন, একসঙ্গে সবগুলো নিয়ে কাজ করা যাবে না। যেহেতু সামনেই বিশ্বকাপ। আপাতত কাটার নিয়ে কাজ করতে বলেছেন তিনি। একটা আয়ত্তে এলে অন্যটা চেষ্টা করতে বলেছেন তিনি।’

default-image

বাংলাদেশ দলের আরেক পেসার মোস্তাফিজুর রহমান কাটারের জন্য বিখ্যাত। মাশরাফিও গত পাঁচ-ছয় বছর কাটার দিয়ে প্রচুর সাফল্য পেয়েছেন। কিন্তু তাসকিনকে নিয়মিত কাটার করতে দেখা যায় না। গতিই তাঁর মূল শক্তি, গতির বৈচিত্র্য নয়। কিন্তু উপমহাদেশের কন্ডিশনে ধারাবাহিক সাফল্য পেতে হলে গতির বৈচিত্র্যও দরকার। তাসকিন বলছিলেন, ‘আমার শক্তি পেস-বাউন্স। এটার সঙ্গে কাটার যোগ হলে আরেকটা বিকল্প হতে পারে। যদি শিখতে পারি, আমার মনে হয়, ভালো হবে। তবে মোস্তাফিজের মতো কাটার আমি পারব না।’

default-image

অনুশীলনের ফাঁকে আরেকটি চমক দেখা যায় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর আসায়। মিরপুর স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম থেকে বেরিয়ে মাঠে আসতেই মাঝমাঠে মাশরাফিকে দেখতে পান মাহমুদউল্লাহ। সাবেক অধিনায়ককে দেখতেই দৌড়ে এসে মাশরাফিকে জড়িয়ে ধরেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। কিছুক্ষণের জন্য মিরপুরের মাঝমাঠ হয়ে ওঠে মিলনমেলায়।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন