ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে একাত্ম হলো বাংলাদেশও।
ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে একাত্ম হলো বাংলাদেশও।ছবি : শামসুল হক

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের গেটের সামনে আগের সেই ভিড়টা নেই। তিন ও এক নম্বর গেটের বাইরে ইতিউতি হাঁটাহাঁটি করছেন হাতে গোনা কিছু মানুষ। গ্যালারিতে দর্শক ঢুকবে না, আগেরই সিদ্ধান্ত। তাই টিকিট বিক্রির ব্যাপার নেই। তবু এই দর্শকেরা এসেছেন বিসিবির বিশেষ আমন্ত্রণপত্র পেয়ে। সাধারণ দর্শকদের প্রবেশাধিকার না থাকলেও বিসিবির আমন্ত্রণে সব মিলিয়ে ৩০০ থেকে ৪০০ দর্শকই ঢুকতে পারার কথা মাঠে।

default-image

সেই দর্শকেরা মাঠে ঢোকার আগেই মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বেলুন উড়ল। গত বছর মার্চের পর প্রায় এক বছরের বিরতি দিয়ে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরেছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশ দলও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই সিরিজ দিয়েই ফিরল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। সেই ফেরাকে সামান্য হলেও রঙিন করতেই খেলা শুরুর আগে বেলুন ওড়ানোর ব্যবস্থা।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তন ম্যাচের অনুষঙ্গ হলো আরও একটি বিষয়। গত জুলাইয়ে করোনাকালে হওয়া প্রথম সিরিজ থেকেই ক্রিকেটে যেকোনো খেলার অনুষঙ্গ সেটি। ফুটবলসহ অন্যান্য খেলায়ও থাকছে সেটি। গত ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের অত্যাচারে জর্জ ফ্লয়েড নিহত হওয়ার পর থেকেই বর্ণবাদের প্রতীকী প্রতিবাদ হচ্ছে খেলার মাঠে। মিরপুরেও সেই ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ অনুচ্চারে ধ্বনিত হলো আজ বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ওয়ানডের আগেও। ম্যাচ শুরুর আগে দুই দলের খেলোয়াড় ও ম্যাচ কর্মকর্তারা হাঁটু গেড়ে বসে মুষ্টিবদ্ধ হাত দেখিয়ে প্রতিবাদ জানালেন বর্ণবাদের।

default-image

বাংলাদেশের প্রত্যাবর্তন সিরিজে প্রথম বলটা করলেন রুবেল হোসেন, সামনে ক্যারিবীয় ওপেনার সুনীল আম্ব্রিস। তাঁকে এলবিডব্লু করেই দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে প্রথম আঘাত আনেন বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমান।

তবে এরপর যে আঘাতটা এল, সেটি কোনোভাবেই কাম্য ছিল না। ৩ ওভার ৩ বল খেলা হতেই বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে গেল খেলা। উইকেট ঢাকা পড়েছে কাভারে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান তখন ১ উইকেটে ১৫। সন্ধ্যার পর কুয়াশার দাপট থেকে ম্যাচকে রক্ষা করতে দিবারাত্রির ম্যাচই শুরু হয়েছে বেলা সাড়ে ১১টায়। কিন্তু বৃষ্টির বাগড়ায় বাধা পড়ল শুরুতেই।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় অবশ্য বৃষ্টি নেই। কাভার সরানো হয়েছে। বৃষ্টি আবার ফিরে না এলে যেকোনো সময় শুরু হবে খেলা।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন