বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বর্তমানে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের হাই পারফরম্যান্স স্কোয়াডের সঙ্গে যুক্ত থাকা মুশতাক স্থানীয় জিও নিউজ চ্যানেলকে বলেছেন, ‘বিরাট কোহলির টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছাড়া দেখিয়ে দিচ্ছে, সবকিছু ঠিকঠাক নেই।’


২০১৭ সালে ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব পান কোহলি। তাঁর অধীনে ভারত ৫০ ম্যাচ খেলে ৩০ জয়ের বিপরীতে হেরেছে ১৬টিতে। ২টি ম্যাচ টাই হয়েছে আর ফল হয়নি ২টি ম্যাচের। ম্যাচ জয়ের পরিসংখ্যান বলছে, কোহলির অধীনেই টি-টোয়েন্টিতে শতাংশের হিসাবে সর্বোচ্চ জয় পেয়েছে (৬৪.৫৮ শতাংশ) ভারত।

default-image

এমন সফলতার পরও কোহলির অধিনায়কত্ব ছাড়া পেছনে দলের মধ্যে উপদল খুঁজে পেয়েছেন মুশতাক আহমেদ, ‘যখন একজন সফল অধিনায়ক অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন, এটা বুঝিয়ে দেয়, ড্রেসিংরুমে সবকিছু ঠিক নেই। আমি এই মুহূর্তে ভারতীয় ড্রেসিংরুমে দুটি গ্রুপ দেখতে পাচ্ছি—মুম্বাই ও দিল্লি গ্রুপ।’


অধিনায়কত্ব তো ছেড়েছেনই, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিও ছাড়ার ঘোষণা দিতে পারেন বলে মনে করেন মুশতাক আহমেদ, ‘আমার মনে হয় ভারতের টি-টোয়েন্টি দল থেকে শিগগিরই অবসরের ঘোষণা দেবে কোহলি; যদিও ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগে খেলা চালিয়ে যাবে। আমার মনে হয় এই সংস্করণে তার যা কিছু দেওয়ার, তা সে দিয়ে দিয়েছে।’

default-image

বিশ্বকাপে ভারতের ব্যর্থতার কারণ হিসেবে অনেকেই আইপিএলকে দায়ী করেছেন। টানা খেলে যাওয়ায় খেলোয়াড়দের জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকতে হচ্ছে। ভারতের কোচ রবি শাস্ত্রী নিজেও দলের ব্যর্থতার কারণ হিসেবে দীর্ঘ সময় জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকার কারণে খেলোয়াড়দের মধ্যে তৈরি হওয়া মানসিক অবসাদকে দায়ী করেছেন।

এমনটা মনে করেন মুশতাক আহমেদও, ‘আমি মনে করি, বিশ্বকাপে ভারতের খারাপ করার কারণ আইপিএল। আমার মনে হয়, বিশ্বকাপের আগে লম্বা সময় জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকার জন্য খেলোয়াড়দের মধ্যে ক্লান্তি চলে এসেছিল।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন