বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

হেডের জায়গায় অবশেষে অস্ট্রেলিয়ার একাদশে সুযোগ পেয়েছেন উসমান খাজা। ২০১৯ সালের অ্যাশেজে হেডিংলি টেস্টের পর এই প্রথম অস্ট্রেলিয়ার একাদশে ফিরলেন এই ব্যাটসম্যান। মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়াকে জিতিয়ে অ্যাশেজ নিশ্চিত করার নায়ক স্কট বোল্যান্ড ধরে রেখেছেন নিজের জায়গা। চোটের কারণে জশ হ্যাজলউড আর ঝাই রিচার্ডসন এখনো শতভাগ ফিট হয়ে উঠতে পারেননি, তাই বোল্যান্ডকে আরেকটা সুযোগ দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।


অধিনায়ক প্যাট কামিন্স নিজেই নিশ্চিত করেন সিডনি টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার একাদশ, ‘স্কটি (বোল্যান্ড) আরেকটা সুযোগ পাচ্ছে। জশ হ্যাজলউড আর ঝাই রিচার্ডসন অনুশীলনে বল করলেও তারা এখনো শতভাগ ফিট নয়। আমরা জশকে অনেক সুযোগ দিয়েছি, কিন্তু আমাদের মনে হয়েছে কাল থেকে পুরোদমে বল করার জন্যও ফিট নয় সে। আশা করি, হোবার্টে হতে যাওয়া পঞ্চম টেস্টে ওকে পাওয়া যাবে। সিডনির পিচে এমন একজন বোলারকে দরকার, যে পাঁচ দিনই স্ট্যাম্প বরাবর বল করে যেতে পারবে। স্কটি সে সুবিধাটা দেয় আমাদের। এতে লুকানোর কিছু নেই যে জশ ফিট হলে সে খেলবে। কিন্তু স্কটি মেলবোর্নে যা দেখিয়েছে, এরপর ওকে এ টেস্টে সুযোগ দেওয়া না হলে ব্যাপারটা অনেক খারাপ হতো।’

ওদিকে ইংল্যান্ডও একাদশে একটি পরিবর্তন এনেছে। সিডনিতে ফিরছেন স্টুয়ার্ট ব্রড। ব্রডকে জায়গা করে দিতে একাদশ থেকে সরে যাচ্ছেন ওলি রবিনসন।

করোনার লক্ষণ দেখা যাওয়ার কারণে ইংল্যান্ডের কোচ ক্রিস সিলভারউড পরিবারের সঙ্গে মেলবোর্নেই কোয়ারেন্টিন কাটাচ্ছেন, তাঁর জায়গায় সিডনিতে দায়িত্ব পালন করবেন গ্রাহাম থর্প।

সিডনিতে অস্ট্রেলিয়ার একাদশ: ডেভিড ওয়ার্নার, মার্কাস হ্যারিস, মারনাস লাবুশেন, স্টিভ স্মিথ, উসমান খাজা, ক্যামেরন গ্রিন, অ্যালেক্স ক্যারি, প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), মিচেল স্টার্ক, নাথান লায়ন, স্কট বোল্যান্ড


সিডনিতে ইংল্যান্ডের একাদশ: হাসিব হামিদ, জ্যাক ক্রলি, ডেভিড মালান, জো রুট (অধিনায়ক), বেন স্টোকস, জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, ক্রিস উড, জ্যাক লিচ, স্টুয়ার্ট ব্রড, জেমস অ্যান্ডারসন

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন