বিরাট কোহলি আর আনুশকা শর্মার সন্তান হবে, আর সেটা নিয়ে মিডিয়ায় মাতামাতি হবে না, তা কি হয়?

বিরাট-আনুশকা দুজনেই জানতেন সেটা। জানতেন বলেই পাপারাজ্জিদের একটা চিঠি পাঠিয়েছিলেন, জানিয়েছিলেন, তাঁদের সন্তানের ছবির জন্য যেন বাড়াবাড়ি না করা হয়, কোথাও যেন ছাপা না হয়। বলেছিলেন, ‘আমাদের সন্তানবিষয়ক সব তথ্য আপনারা আমাদের কাছ থেকেই পাবেন। কিন্তু আপনাদের অনুরোধ করব, এমন কিছু ছাপাবেন না, যার মধ্যে আমাদের সন্তানের কিছু আছে। আশা করব, আপনারা ব্যাপারটা বুঝবেন, আর সে জন্য আপনাদের আগে থেকেই ধন্যবাদ জানিয়ে রাখছি।’

এমনকি বাবা হওয়ার পরেও কোহলি নিজের বার্তায় ব্যক্তিগত গোপনীয়তার ব্যাপারটা উল্লেখ করেছিলেন এভাবে, ‘আমরা খুবই রোমাঞ্চের সঙ্গে জানাচ্ছি, সৃষ্টিকর্তার কৃপায় আমরা মেয়ের বাবা-মা হয়েছি। আমরা আপনাদের এত এত ভালোবাসার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আনুশকা আর বাচ্চা দুজনই সুস্থ আছে। আমরা আপনাদের আশীর্বাদ নিয়ে নতুন জীবন শুরু করতে যাচ্ছি। আমরা আশা করি, আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের ব্যাপারগুলো আপনারা সবাই মাথায় রাখবেন এবং গভীর সহানুভূতির সঙ্গে দেখবেন। ভালোবাসা সবাইকে।’

বিজ্ঞাপন

বশেষে দুজনই নিজেদের দেওয়া কথা রেখেছেন। সাংবাদিকদের ঠিকই সন্তানবিষয়ক তথ্য দিয়েছেন, সময়মতো। আজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে মেয়েকে নিয়ে ছবি পোস্ট করেছেন আনুশকা শর্মা। কিন্তু এমনভাবে মেয়েকে ধরে রেখেছেন, যাতে চেহারাটা না বোঝা যায়। এ যেন দেখিয়েও না দেখানো!

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সাদা একটা টি-শার্ট পরা বিরাট কোহলি ও গোলাপি হুডি পরা আনুশকা পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছেন, হাসিমুখে। আনুশকার হাতে ধরা আছে তাঁদের মেয়ে, আনুশকার দিকেই মুখ করে। ফলে, ছবিতে মুখ দেখা যায়নি। তবে চেহারা না দেখা গেলেও আনুশকার পোস্টের মাধ্যমে বিশ্ব ঠিকই জেনেছে, এই দম্পতির সন্তানের নাম কী, ‘ভালোবাসা, কৃতজ্ঞতা ও একে অপরের জীবনে সদা উপস্থিত থেকে আমাদের জীবন একত্রে কাটিয়েছি, কিন্তু “ভামিকা” আমাদের জীবনে একটা সম্পূর্ণ নতুন মাত্রা দিয়েছে। মাঝেমধ্যে এক মিনিটের মধ্যে আনন্দাশ্রু, হাসি, চিন্তা, কৃতজ্ঞতাবোধ—একাধিক আবেগ ভিড় জমায় মনের কোণে।’

নতুন নতুন অভিভাবকত্বের আনন্দ পাওয়া এই দম্পতি আর দশটা নতুন মা–বাবার মতো মেয়ের জন্য ঘুমাতেও পারছেন না ঠিকমতো, ‘ঘুমাতে পারছি না ঠিকই, কিন্তু আমাদের হৃদয় এখন আনন্দে পরিপূর্ণ। শুভকামনা, আশীর্বাদের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন