ঝড় শেষে ক্যামেরার সামনে হাস্যোজ্জ্বল ক্রিস গেইল।

টি–১০ ক্রিকেটে ব্যাট হাতে মূল কাজটা কী, সেসব রুটিনমাফিক বলেই কুমার সাঙ্গাকারার প্রসঙ্গ তুললেন, ‘সবকিছুর আগে সাঙ্গাকারাকে কৃতিত্ব দিতে হবে। ব্যাটিংয়ের আগে সে আমার সঙ্গে কথা বলেছে। আমার ব্যাটিংয়ে কিছু একটা দেখে সেটি তুলনা করেছে আইপিএল ও টি–১০-এর সঙ্গে...। আসলে আমাদের দরকার ছিল উদ্দীপনামূলক কিছু কথা। এটা তার কাছ থেকে এসেছে। একজন কিংবদন্তি।’

বিজ্ঞাপন

খানিকটা মজাও করলেন, ‘আমরা কখনোই শেখা থামাই না। সাঙ্গা, একজন কিংবদন্তি। কথাটা আরেক কিংবদন্তির।’

কিন্তু গেইল যতই মজা করুন, সংক্ষিপ্ত সংস্করণে বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তাঁকে কিংবদন্তি মানতেই হবে। আজ টি–১০ ক্রিকেটেও এই ঝলক দেখিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ কিংবদন্তি।

তাঁর ২২ বলে ৮৪ রানের ঝড়ে মোসাদ্দেক হোসেন, মুক্তার আরীদের মারাঠা অ্যারাবিয়ানসকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে টিম আবুধাবি।

আগে ব্যাট করে ৪ উইকেটে ৯৭ রান তুলেছিল মারাঠা। ওপেনিংয়ে নেমে ৭ বলে ১৪ রান করেন মুক্তার। ২ রানে অপরাজিত ছিলেন অধিনায়ক মোসাদ্দেক। আরব আমিরাতের আলিশান শারাফু ৩৩ ও মোহাম্মদ হাফিজ ২০ রান করেন।

তাড়া করতে নেমে টিম আবুধাবি জিতেছে ২৭ বল হাতে রেখে। ৯ ছক্কা ও ৬ চারের ইনিংসে অপরাজিত ছিলেন গেইল।

মোসাদ্দেকের এক ওভারে ২ চার ও ২ ছক্কায় ২০ রান নেন টিম আবুধাবির এই ওপেনার। ওই ওভারে ওঠা ২২ রানে মাত্র ২ রান নেন পল স্টার্লিং। পরের বলেই আউট হন।

প্রথম দুই বলে কোনো রান পাননি। কিন্তু পরের ১১টি ডেলিভারিকে বাতাসে ভাসিয়ে কিংবা মাটি কামড়ে সীমানা পার করেছেন এই ক্যারিবিয়ান। এ সময় ৫টি চার ও ৬ ছক্কায় ১২ বলে তুলে নেন ফিফটি।

আবুধাবির এই টি–১০ লিগে এর আগে ১২ বলে ফিফটি করেছিলেন শুধু আফগানিস্তানের মোহাম্মদ শাহজাদ। ২০১৮ সংস্করণে।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন