বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সকাল সকাল দক্ষিণাঞ্চলকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে ১৬২ রানে অলআউট করে উত্তরাঞ্চল। বাঁহাতি পেসার শফিকুল ইসলাম ও সানজামুল ইসলাম তিনটি করে উইকেট নিয়ে উত্তরাঞ্চলের ব্যাটিংয়ে ধস নামান।

উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে পিনাক ঘোষ ভালো খেলছিলেন। কিন্তু ৭৬ বল খেলে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে আউট হন তিনি। মাঝের ওভারে ৭৭ বল খেলে ৫৫ রান করেন তৌহিদ হৃদয়। এ ছাড়া দক্ষিণাঞ্চলের ইনিংসে উল্লেখযোগ্য কিছুই ছিল না।

default-image

উত্তরাঞ্চল ১৬৩ রান তাড়া করতে নামলে কন্ডিশনের পার্থক্যটা বোঝা যায়। দুপুরের রোদে ব্যাটিংয়ের সময় ব্যাটসম্যানদের স্পিন কিংবা সুইংয়ে ভুগতে হয়নি। ইনিংসের প্রথম ওভারে তানজিদ হাসান জাতীয় দলের স্পিনার মেহেদী হাসানকে কাভার দিয়ে মারতে গিয়ে বোল্ড হন। এ ছাড়া চ্যালেঞ্জ বলতে কিছুই ছিল না ব্যাটসম্যানদের।

মোস্তাফিজুর রহমান শুরুতে সুইং পেয়েছেন। কিন্তু ওই চ্যালেঞ্জ সহজে উতরে গেছেন আরেক ওপেনার পারভেজ হোসেন ও তিনে নামা নাঈম ইসলাম। দুজন মিলে ৯১ রান যোগ করলে উত্তরাঞ্চলের জয় প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায়।

default-image

মেহেদীর অফ স্পিনে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে ৫৪ বল খেলে ৫৪ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন পারভেজ। ৫টি চার ও ৪টি ছক্কায় সাজানো ইনিংসটি সাজান এই বাঁহাতি।

উত্তরাঞ্চল বাকি পথ পাড়ি দেয় দুই অভিজ্ঞ নাঈম (৬৬) ও মার্শালের (৩২) ব্যাটে। ৬৬ রানের অপরাজিত ইনিংসের সঙ্গে হাত ঘুরিয়ে ২ উইকেট নেওয়ার ম্যাচ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন নাঈম।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন