বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গতকাল আইপিএলের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে জিতেছে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। মুম্বাইকে তারা হারিয়েছে ৫৪ রানে। আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৬৫ রান তোলে বেঙ্গালুরু। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৮.১ ওভারে ১১১ রান তুলে অলআউট হয়ে যায় মুম্বাই। বেঙ্গালুরুর হয়ে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন ম্যাক্সওয়েল। খেলেছেন ৩৭ বলে ৫৬ রানের দারুণ এক ইনিংস। ইনিংসে মেরেছেন ৬টি চারের সঙ্গে ৩টি ছয়, স্ট্রাইক রেট ছিল ১৫০ এর ওপর। ঝড় তোলার পরও শেবাগের মন ভরাতে পারেননি ম্যাক্সওয়েল।

ক্রিকবাজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শেবাগ জানিয়েছেন, ম্যাক্সওয়েল ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী বুদ্ধি খাঁটিয়ে দলের প্রয়োজন অনুযায়ী খেলতে পারেন না। তবে ম্যাক্সওয়েলের প্রতিভা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই শেবাগের, ‘ওর প্রতিভা আছে, সামর্থ্যও আছে। কিন্তু কিছু কিছু সময়ে ও বুদ্ধি খাটায় না। আজ ও ওর বুদ্ধির সঠিক ব্যবহার করেছে। যে কারণে রান করতে পেরেছে।’

default-image

দুদিন পর পর ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে এমন নেতিবাচক কথার বান ছোটানোর জন্য অস্ট্রেলিয়ান এই অলরাউন্ডারকে শেবাগ দেখতে পারেন না, এমনটা মনে হতেই পারে। শেবাগ নিজেও বোঝেন সেটা। বোঝেন দেখেই সে ব্যাপারেও নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন, ‘আমি ম্যাক্সওয়েলের বিপক্ষে নই। তবে ওর খেলার ধরনটা ভালো লাগে না আমার। ও ভালো খেলোয়াড়। কিন্তু কখনো কখনো সে ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলতে পারে না।’

শেষে ম্যাক্সওয়েলের বেতন নিয়েও একটা সূক্ষ্ম খোঁচা দিয়েছেন শেবাগ, ‘ও যদি ওর বুদ্ধি খাঁটিয়ে প্রতিভার ব্যবহার না করে দলকে জেতাতে না পারে, তাহলে সে বুদ্ধি থেকে কোনো লাভ নেই। সে আইপিএলের প্রতি মৌসুমে বিশ লাখ ডলার করে পাচ্ছে, যার বিনিময়ে সে কিছুই করে না।’

default-image

এর আগেও ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে তির্যক কথা বলেছিলেন শেবাগ। এর আগে আইপিএলে অনেক ম্যাচেই ব্যর্থ হয়েছেন ম্যাক্সওয়েল। কিন্তু ওদিকে অস্ট্রেলিয়াকে জিতিয়েছেন অনেক ম্যাচ। একেকটা ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ম্যাক্সওয়েল ভালো করেন, আর শেবাগের ক্ষোভটা যেন আরেকটু জেগে ওঠে।

এর আগে ‘ম্যাক্সি’কে ‘১০ কোটির চিয়ারলিডার’ বলেছিলেন শেবাগ। ভারতের বিপক্ষে সিরিজের এক ম্যাচে ম্যাক্সওয়েলকে জ্বলে উঠতে দেখে শেবাগ বলেছিলেন, আইপিএলে ম্যাক্সওয়েল নাকি ক্রিকেটকে গুরুত্বই দেন না, আইপিএলে আসেনই মজা করতে, ‘আইপিএলে ও (ম্যাক্সওয়েল) কোনো চাপই নেয় না। ও সেখানে যায় শুধু মজা করার জন্যই। ম্যাচে সে সবকিছুই করে, খেলোয়াড়দের উৎসাহ দেয়, ঘুরে বেড়ায়, নাচে...শুধু রানটাই করে না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন