default-image
>টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৬৪ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। সেঞ্চুরি করেছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দেড় বছর পর উইকেট পেয়েছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। এবার ভারতের বিপক্ষে দেড় বছর পর সেঞ্চুরিও পেলেন। ম্যাথুসের এই সেঞ্চুরিতে ভর করেই ভারতের সামনে ২৬৫ রানের লক্ষ্য দাঁড় করিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ম্যাথুসকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন আরেক ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নে।

যদিও শ্রীলঙ্কার শুরুটা দেখে বোঝার উপায় ছিল না, এত দূর পর্যন্ত যেতে পারবে তারা। ভারতীয় বোলারদের তোপের মুখে মাত্র ৫৫ রানেই যে হারিয়ে ফেলেছিল ৪ উইকেট। আরও একবার ব্যর্থ হয়েছে শ্রীলঙ্কার টপ অর্ডার। ব্যর্থ হয়েছেন সর্বকনিষ্ঠ শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি করা আভিস্কা ফার্নান্দোও। সেখান থেকেই লঙ্কানদের টেনে তুলেছেন ম্যাথুস ও থিরিমান্নে। পঞ্চম উইকেট জুটিতে দুজনে যোগ করেছেন ১২৪ রান।

জুটিতে থিরিমান্নের চেয়ে ম্যাথুসের অবদানই বেশি ছিল। ৫৩ রান করে থিরিমান্নে যখন আউট হলেন, তখন শ্রীলঙ্কার রান ১৭৯। এরপরও অবশ্য লড়াই থামাননি ম্যাথুস, ষষ্ঠ উইকেটে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে নিয়ে যোগ করেছেন আরও ৭৪ রান, যেখানে ডি সিলভার অবদান ছিল মাত্র ২৪। শেষ পর্যন্ত ১১৩ রানে যশপ্রীত বুমরার বলে থেমেছেন ওয়ানডেতে নিজের মাত্র দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পাওয়া ম্যাথুস।

পাঁচ ভারতীয় বোলারের মধ্যে প্রত্যেকেই উইকেট পেয়েছেন আজ। মোহাম্মদ শামি ও যুজবেন্দ্র চাহালকে বিশ্রামে রেখে খেলতে নামা ভারতের হয়ে সবচেয়ে সফল ছিলেন বুমরা। ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নিয়েছেন। শ্রীলঙ্কার বাজে শুরুর পেছনে মূল অবদানও বুমরার। নিজের প্রথম স্পেলেই তুলে নিয়েছিলেন দুই ওপেনারের উইকেট। পরে শেষ স্পেলে ফিরিয়েছেন সেঞ্চুরি করা ম্যাথুসকেও।

দিনের আরেক ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া যদি দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে যায়, তাহলে শ্রীলঙ্কাকে হারাতে পারলেই পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করবে ভারত। সেক্ষেত্রে আগামী ৯ জুন ম্যানচেস্টারে সেমিফাইনালের প্রতিপক্ষ হিসেবে নিউজিল্যান্ডকে পাবে বিরাট কোহলির দল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0