যে কারণে অস্ট্রেলিয়ার 'কঠিন' প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের মেয়েরা

বিজ্ঞাপন
default-image
‘অচেনা প্রতিপক্ষ’ বলেই বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ভাবনাটা একটু বেশি


গত কয়েকটা দিন অস্ট্রেলীয় নারী ক্রিকেট দলের সহ অধিনায়ক র‌্যাচেল হেইন্সের খুব ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। তাঁর এই ব্যস্ততা সালমা খাতুন-জাহানারা আলমদের নিয়ে। মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে যে আজই বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া। ক্যানবেরার মানুকা ওভালের এই ম্যাচের আগে হেইন্সের ব্যস্ততার মূল কারণ দল হিসেবে বাংলাদেশের রহস্যময়তা। ক্রিকেটে অচেনা প্রতিপক্ষ যেকোনো দলের কাছেই বড় রহস্য। মেয়েদের ক্রিকেটে কোনো পর্যায়ে কখনোই যে বাংলাদেশর সঙ্গে দেখা হয়নি অস্ট্রেলিয়ার।

এ যুগে অবশ্য প্রযুক্তির কল্যাণে যেকোনো তথ্যই হাতের কাছে খুঁজে পাওয়া যায়। অচেনা প্রতিপক্ষ হলেও বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলকে নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু তারপরেও কথা থেকে যায়। ‘অচেনা প্রতিপক্ষ’ বলেই বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সব রহস্য ভেদ করা যে কঠিন, সেটা স্বীকার করছে অস্ট্রেলীয় নারী দল।

বাংলাদেশের সঙ্গে এর আগে কখনোই খেলেনি অস্ট্রেলিয়া—এটা তো আছেই। বিগ ব্যাশেও বাংলাদেশের মেয়েদের খুব একটা দেখা যায় না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও যে বাংলাদেশের মেয়েরা খুব একটা নিয়মিত নন। অস্ট্রেলীয় দলের অ্যানালিস্ট সানি ক্যালিয়ার তো বলেই দিয়েছেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অন্য দলগুলোকে নিয়ে যেভাবে বিশ্লেষণ করা হয়, বাংলাদেশের ব্যাপারটি তা থেকে ভিন্ন। বরং বাংলাদেশ নারী দলকে নিয়ে একটু বেশিই পরিশ্রম করতে হচ্ছে তাদের।

ম্যাচটা অস্ট্রেলিয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হেরে যাওয়ার পর যদিও দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে তারা, কিন্তু আজ কোনো অঘটন ঘটলে কিন্তু স্বাগতিক দেশের সেমিফাইনালে যাওয়াটাই কঠিন হয়ে পড়বে। অস্ট্রেলিয়া এখন বাংলাদেশকে নিয়ে খুব জোর বিশ্লেষণ করছে। এ ব্যাপারে ভারতের বিপক্ষে সালমাদের প্রথম ম্যাচের ভিডিও বড় ভূমিকা রাখছে। একই সঙ্গে বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়ে দেওয়া প্রস্তুতি ম্যাচের ভিডিও আর গত বছর স্কটল্যান্ডে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বাংলাদেশের ম্যাচগুলোর ভিডিও অস্ট্রেলীয় দলকে দারুণ সাহায্য করছে।

এ ব্যাপারে প্রযুক্তিকে ধন্যবাদ দিচ্ছেন হেইন্স, ‘এ যুগে প্রযুক্তির কল্যাণে প্রতিটি খেলোয়াড়কে বিশ্লেষণ করা যায়। এটা একটা ভালো দিক। মানুকা ওভালের ম্যাচটির আগে অস্ট্রেলিয়া দলের ১৫ জন খেলোয়াড়ের প্রত্যেকেই বাংলাদেশের প্রতিটি খেলোয়াড়কে নিয়ে বিশ্লেষণ করে যাচ্ছে। আমরা সব প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই এমনটা করি। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে একটু বাড়তি মনোযোগ দিতে হচ্ছে—এই আর কি!’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন