একবাররে জন্যেও আইপিএল জিততে পারেননি কোহলি।
একবাররে জন্যেও আইপিএল জিততে পারেননি কোহলি।ছবি : রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু টুইটার

বিরাট কোহলির ক্যারিয়ারে বড় আক্ষেপ কোনটা?

বর্তমান যুগে ব্যাটসম্যান হিসেবে তাঁর শ্রেষ্ঠত্ব প্রশ্নাতীত, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড় হলেই যে ক্যারিয়ারে আক্ষেপ থাকবে না, তা কি হয়? লিওনেল মেসির কথাই ধরুন। তর্কযোগ্যভাবে ইতিহাসের শ্রেষ্ঠতম ফুটবল তারকা হওয়ার পরও এখনো দেশের হয়ে কিছু জিততে না পারার আক্ষেপটা এখনো পোড়ায় তাঁকে। একই আক্ষেপ ইয়োহান ক্রুইফ, পাওলো মালদিনিদেরও ছিল। ওদিকে কিংবদন্তি ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার রোনালদো নাজারিও কিংবা ইতালিয়ান তারকা জিয়ানলুইজি বুফনের আক্ষেপ একটা চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিততে পারা। অথচ তাঁরা দুজনই দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জেতার স্বাদ পেয়েছেন। ব্রায়ান লারা কিংবা সৌরভ গাঙ্গুলীর আক্ষেপ ক্রিকেটে দেশকে বিশ্বকাপ জেতাতে না পারা।

বিজ্ঞাপন

অমন আক্ষেপ কোহলিরও যে নেই, তা নয়। দেশকে এখনো অধিনায়ক হিসেবে কিছু জেতাতে পারেননি। সবচেয়ে বড় আশ্চর্যের বিষয় যেটা, বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আইপিএল খেলছেন ১৩ মৌসুম ধরে, সাফল্যের খাতায় একটা অশ্বডিম্ব ছাড়া কিছুই নেই। এই ১৩ মৌসুমে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ছাড়া কোথাও খেলেননি। প্রথমে সাধারণ খেলোয়াড় হিসেবে, পরে অধিনায়ক হওয়ার পরও আইপিএলের শিরোপায় চুমু এঁকে দেওয়ার সৌভাগ্য হয়নি ভারত অধিনায়কের।

default-image

কিন্তু এমনটা কেন হচ্ছে? প্রশ্নের জবাব খুঁজে পেয়েছেন বাংলার অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি। কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে আইপিএল জেতা এই তারকার মতে, কোহলির আইপিএল না জিততে পারার পেছনে রয়েছে বেশ কিছু কারণ। আইপিএল জেতার জন্য কোহলির দলের মধ্যে রসায়ন ও ট্যাকটিকস খুঁজে পান না এই ব্যাটসম্যান।

জাতীয় দলে কোহলির সমসাময়িক অন্য প্রায় সব সতীর্থই কোনো না কোনো সময়ে জিতেছেন আইপিএল। মহেন্দ্র সিং ধোনি কিংবা রোহিত শর্মার কথাই চিন্তা করুন, আইপিএলের সফলতম দুই অধিনায়ক তাঁরা। শিরোপা জুটেছে বর্তমান ভারতীয় দলের যশপ্রীত বুমরা, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, হার্দিক পান্ডিয়া, দীনেশ কার্তিক, উমেশ যাদব, শিখর ধাওয়ান, ভুবনেশ্বর কুমার, ক্রুনাল পান্ডিয়া এমনকি শার্দুল ঠাকুর, দীপক চাহারদের কপালেও। অথচ কোহলি যেন শিরোপাজয়ীদের দলে এখনো অনাহূত।

মনোজ তিওয়ারি নিজেও এককালে আইপিএল জিতেছেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। সে অভিজ্ঞতা থেকেই কী না, ধরতে পেরেছেন কোহলি আর তাঁর দলের সমস্যাটা, ‘কোহলি ও তাঁর দলের সফল না হওয়ার পেছনে অনেক কারণ আছে। কোহলিকে দেখুন, সে কিন্তু জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে অনেক সফল। দলগতভাবে শিরোপা জেতার জন্য সে দলের রসায়নটা অনেক ভালো হতে হয়।’

বিজ্ঞাপন

রসায়নের পাশাপাশি তিওয়ারির চোখে আরেকটা সমস্যাও চোখে পড়েছে। বাংলার এই ক্রিকেটারের মতে, বিদেশিরা ঠিক ভালোভাবে পারফর্ম করতে পারছেন না বেঙ্গালুরুর হয়ে। তাঁর মতে, যেহেতু এবি ডি ভিলিয়ার্সের মতো একজন খেলোয়াড় নিয়মিত বেঙ্গালুরুর হয়ে মাঠে নামছেন, সেহেতু তাঁকে উইকেটকিপার হিসেবে খেলিয়ে মূল একাদশে আরেকজন বিদেশি খেলানোর পক্ষপাতী তিওয়ারি, ‘গোটা টুর্নামেন্টে যদি এবি ডি ভিলিয়ার্স উইকেটকিপিং না করে, তাহলে আপনি আরেকজন বিদেশি খেলাতে পারবেন না দলটায়। গত মৌসুমে প্রথম কয়েক ম্যাচে ভিলিয়ার্স কিপিং করেনি, কিন্তু পরে তাঁকে সেই দায়িত্ব ঠিকই পালন করতে হয়েছে।’

default-image

দলে বাড়তি একজন বিদেশি ভালো পারফর্ম না করলে ফলাফলের আশা করা যায় না বলে জানিয়েছেন আইপিএলজয়ী এই তারকা, ‘জশ ফিলিপের মতো তারকা গতবার কিছু করতে পারল না। বেঙ্গালুরু ভেবেছিল, ফিলিপে এসে টপ অর্ডারে বেশ কিছু রান যোগ করবে, কিন্তু সেটা হয়নি। বিদেশি খেলোয়াড়েরা ভালো না খেললে আসলে ট্রফি জেতার আশা করা যায় না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন