ভারতের অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা।
ভারতের অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা।ফাইল ছবি: এএফপি

ভারতীয় দলে রবীন্দ্র জাদেজার ভূমিকা বা গুরুত্ব কতটুকু? বিরাট কোহলি, যশপ্রীত বুমরা কিংবা রোহিত শর্মার মতো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কি তাঁকে বলা যায়? সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন অবশ্য জাদেজাকে কোহলি-রোহিত কিংবা বুমরাদের কাতারেই রাখতে চান। আর যে কারণে জাদেজাকে নিয়ে বিসিসিআইয়ের নেওয়া এক সিদ্ধান্তে বেশ চটেছেন ভন।

চার ক্যাটাগরিতে মোট ২৮ জন ক্রিকেটারকে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এনেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজাকে রাখা হয়েছে ‘গ্রেড এ’ ক্যাটাগরিতে। এতেই খেপেছেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন। বিসিসিআইয়ের এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি ভনের।

তাঁর মতে, আসছে মৌসুমের জন্য বিসিসিআইয়ে যেসব ক্রিকেটারের সঙ্গে চুক্তি করেছে, সেই তালিকায় জাদেজাকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে রাখাটা ‘অপমান’।

বিজ্ঞাপন

ক্রিকেটের নানা বিষয় নিয়ে প্রায় সময়ই সরব থাকেন ভন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁর উপস্থিতি বেশ লক্ষণীয়। বৃহস্পতিবার বিসিসিআই এই কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা প্রকাশ করেছে। সংবাদমাধ্যমগুলোয় বলা হয়, রবীন্দ্র জাদেজার এবার এক ধাপ ওপরে ওঠার সম্ভাবনা আছে, এমনটাই অনুমান করছিলেন সবাই।

কিন্তু শেষমেশ তেমনটা হয়নি। গতবার যে গ্রেডে ছিলেন, এবারও তা–ই আছেন। ভন সংবাদমাধ্যমের এমনই এক টুইট রি–টুইট করে লিখেছেন, ‘অপমান...তাঁর এই তালিকায় বিরাটের পেছনেই থাকা উচিত।’ ভন বোঝাতে চেয়েছেন, বিসিসিআই কেন্দ্রীয় চুক্তির যে তালিকা তৈরি করেছে, সেখানে পারিশ্রমিকের সর্বোচ্চ স্তরে জাদেজার থাকা উচিত।

মোট চারটি ক্যাটাগরিতে ২৮ ক্রিকেটারকে ভাগ করেছে বিসিসিআই। এ প্লাস তালিকায় রয়েছেন বিরাট কোহলি, যশপ্রীত বুমরা ও রোহিত শর্মা। ৭ কোটি রুপি করে পারিশ্রমিক পাবেন তাঁরা। মোট ১০ জন ক্রিকেটারকে রাখা হয়েছে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে—তাঁরা পাবেন ৫ কোটি রুপি করে।

রবিচন্দ্র অশ্বিন, চেতেশ্বর পূজারা, অজিঙ্কা রাহানে, হার্দিক পাণ্ডিয়াদের মতো জাদেজাও ঠাঁই পেয়েছেন এখানে। ভারতের এই অলরাউন্ডার অবশ্য তিন সংস্করণেই জাতীয় দলের নিয়মিত মুখ।

গত ১৫–২০ মাস ধরে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি–টোয়েন্টিতে নিয়মিত খেলছেন জাদেজা। যদিও চোটের কারণে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরোয়া সিরিজে খেলতে পারেননি। চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে আইপিএলে এবার ভালো করছেন বাঁহাতি এ স্পিনার।

শুধু ভন নয় ভারতের সাবেক প্রধান নির্বাচক এমএসকে প্রসাদও জাদেজাকে এ প্লাস ক্যাটাগরিতে না দেখে অবাক, ‘জাদেজা একজন নিখাদ এ প্লাস ক্রিকেটার। যাঁরা সব সংস্করণেই খেলছেন এবং আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ে ভালো অবস্থানে তাঁদের এখানে অর্ন্তভুক্ত করা হয়। তাঁকে এ প্লাস তালিকায় না নেওয়ার কোনো কারণ দেখছি না।’

গত বছর বি গ্রেডের ক্রিকেটার ছিলেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। এবার এক ধাপ উঠে এসেছেন তিনি। শুবমান গিল ও মোহাম্মদ সিরাজের মতো নতুনরা সি গ্রেডের অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। শার্দুল ঠাকুর উঠে এসেছেন বি ক্যাটাগরিতে। তবে বি ক্যাটাগরিতে অবনমন হয়েছে পেসার ভুবনেশ্বর কুমারের। চোটের কারণে দীর্ঘদিন না খেলায় কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এই অবনমন হয়েছে ভুবনেশ্বরের।

ভনের কথায় ও বিসিসিআইয়ের এই অনাদরের জবাব এখন জাদেজা আইপিএলে চেন্নাইয়ের হয়ে দেন কি না, সেটাই দেখার বিষয়!

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন