বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আইসিসি গতকাল এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ২০২৫ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আয়োজক হবে পাকিস্তান। এরপর ভারত নিয়ে এমন মন্তব্য করলেন রমিজ রাজা। পাকিস্তানে সর্বশেষ বড় কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজিত হয়েছে ১৯৯৬ সালে—ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ভারত ও শ্রীলঙ্কাও ছিল এ টুর্নামেন্টের যৌথ আয়োজক।

২০০৯ সালে লাহোরে সন্ত্রাসী হামলায় পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হয় না বললেই চলে। তবে পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ে এর মধ্যে পাকিস্তান সফর করেছে। কিন্তু একাধিক দল নিয়ে পাকিস্তান নিজেদের মাটিতে এ সময়ের মধ্যে কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারেনি। তবে ২০২৩ সালের এশিয়া কাপ হওয়ার কথা পাকিস্তানে।

অনলাইনে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতায় রমিজ রাজা বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ আয়োজন করা কঠিন। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজ একসময় হতে পারে। আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়ানো তো আর সহজ বিষয় না। কারণ এসব ক্ষেত্রে চাপ থাকে। আমার মনে হয় না এটা হবে।’

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেন রমিজ রাজা, ‘কাজের সূত্রে সৌরভ গাঙ্গুলীর সঙ্গে সম্পর্কটা ভালোই। ক্রিকেটকে এগিয়ে নেওয়া নিয়ে আমরা অনেক কথা বলি। তবে কাজটা সহজ হবে না। যেহেতু রাজনৈতিক বিষয় জড়িত, সময় তো লাগবেই।’

ভারতের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর জানিয়েছেন, ২০২৫ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ভারত অংশ নেবে কি না, তা ঠিক করবে দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ভারতের সংবাদমাধ্যম ‘টাইমস নাউ’কে অনুরাগ ঠাকুর বলেন, ‘কী করতে হবে তা সময় এলেই বোঝা যাবে। সিদ্ধান্ত নেওয়াটা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিষয়। নিরাপত্তা ইস্যুতে অনেক দলই তো পাকিস্তান সফর থেকে সরে দাঁড়িয়েছে। আমরা নিরাপত্তা দেখে তারপর সিদ্ধান্ত নেব।’

অনুরাগ ঠাকুরের এই মন্তব্যের পর ভারত নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কথা বলেন রমিজ রাজা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন