বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মধ্যাহ্নবিরতির পর প্রথম ওভারেই ইবাদতের বলে স্লিপে ক্যাচ তুলেছিলেন উইল ইয়াং। তবে দ্বিতীয় স্লিপ থেকে বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে ক্যাচটা নিতে গিয়ে মিস করেছেন লিটন দাস। তিনি চেষ্টা না করলে হয়তো ক্যাচটা যেত প্রথম স্লিপে থাকা নাজমুল হোসেনের কাছেই। ঘটনার সেখানেই শেষ নয়। লিটনের হাত গলে বেরিয়ে যাওয়া বলটা গিয়েছিল ফাইন লেগের দিকে, সেখান থেকে থ্রো এসেছিল উইকেটকিপার নুরুল হাসানের কাছে। তবে নন-স্ট্রাইক প্রান্তে নুরুলের থ্রো-টা গেল স্টাম্পকে ফাঁকি দিয়ে সীমানার দিকে। আশেপাশে কেউ ছিলেন না, ইবাদতই তাই ছোটা শুরু করলেন, তবে থামাতে পারলেন না বলটা। যে বলে আউট হতে পারতেন, ইয়াং সে বলেই পেয়ে গেলেন ৭ রান! সেখানেই শেষ নয়, ইবাদতের পরের ওভারে হয়েছে আরেকটি থ্রো, সেটিতেও এসেছে ৫ রান, সেটাও ইয়াংয়ের ভাগেই!

default-image

এ ডামাডোলের পর ব্যাট দিয়ে মারা ল্যাথামের চারেই নিউজিল্যান্ড ছুঁয়ে ফেলে ১০০। ২০১২ সালের পর এই প্রথমবার নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে উঠলো শতরান। সর্বশেষ তুলেছিলেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও মার্টিন গাপটিল, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। ক্রাইস্টচার্চে অবশ্য ম্যাচের প্রথম ইনিংসে শত রানের উদ্বোধনী জুটি এবারই প্রথম। এ পরিসংখ্যানই বলে দেয়—হ্যাগলি ওভালের উইকেট ২ সেশন শেষে ১ উইকেটের বেশি দাবি করে প্রথম দিন।

বাংলাদেশ বোলাররা এ সেশনেও চাপ ধরে রাখতে পারেননি। মাঝে টানা দুটি মেডেন করা তাসকিন আহমেদকে সরিয়ে দিয়ে প্রথমবারের মতো মেহেদী হাসান মিরাজকে এনেছিলেন মুমিনুল হক। তবে এ অফ স্পিনারের ওপর চড়াও হয়েছেন ল্যাথাম-ইয়াংরা। সে ওভারে তাঁকে চার মেরে নব্বইয়ের ঘরে গেছেন ল্যাথাম, ৯৮ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেছেন ইয়াং। মিরাজ প্রথম ৩ ওভারে দিয়েছিলেন ১৮ রান।

default-image

ইয়াং অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি এরপর, ৩৮তম ওভারে গিয়ে অবশেষে বাংলাদেশ পেয়েছে প্রথম উইকেটের দেখা। শরীফুলের ফুললেংথের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ইয়াং। তবে কনওয়েকে সঙ্গে নিয়ে নিউজিল্যান্ডের দাপট আরও বাড়িয়েছেন এরপর ল্যাথাম।

৯৪ রানে শরীফুলের শর্ট বলে একবার ক্যাচ তুলেও বেঁচে গেছেন ল্যাথাম, সেটি পড়েছে ছুটকে থাকা বোলার, উইকেটকিপার ও স্লিপ ফিল্ডারদের নাগালের বাইরেই। নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক শতক পূর্ণ করেছেন মিরাজের বলে সিঙ্গেল নিয়ে, মাত্র ১৩৩ বলে। ক্যারিয়ারে এটি তাঁর ১২তম শতক। নিউজিল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি শতকের তালিকায় এখন ল্যাথামের ওপর থাকলেন শুধু কেইন উইলিয়ামসন, রস টেলর ও মার্টিন ক্রো।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন