রেকর্ড গড়ার রাতেও হারতে হলো ওয়ার্নারকে।
রেকর্ড গড়ার রাতেও হারতে হলো ওয়ার্নারকে। ছবি: আইপিএল

আজ আইপিএলে ‘ফার্গি টাইমে’র দেখা মিলল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সেই বিখ্যাত ফার্গি টাইমে কী হতো মনে আছে তো? ঘরের মাঠে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ম্যাচের শেষ মুহূর্তেও সুবিধাজনক অবস্থানে না থাকলেই লাফ-ঝাঁপ বেড়ে যেত কিংবদন্তি কোচ অ্যালেক্স ফার্গুসনের। রেগে লাল হয়ে ওঠা সে মুখের সামনে পড়ে যোগ করা সময়ের দৈর্ঘ্য একটু বেড়ে যেত। আর কীভাবে না কীভাবে যেন ম্যাচটা নিজেদের পক্ষে নিয়ে যেত ইউনাইটেড। দলটির সমর্থকেরা ভালোবেসে এই মুহূর্তটার নাম দিয়েছিল ‘ফার্গি টাইম’, যে সময়টা ফার্গুসনের রাজত্বের সময়।

আজ আইপিএল আরেক ফার্গুসন রাজত্ব করলেন। ক্রিকেটে যোগ করা সময় বলে যদি কিছু থেকে থাকে সেটা সুপার ওভার। আজ সুপার ওভারে লকি ফার্গুসনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৩ বলের মধ্যে অলআউট হয়ে গেল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। সেটা অনায়াসে পার করে ম্যাচ জিতে নিয়েছে ফার্গুসনের দল কলকাতা নাইট রাইডার্স। টুইটারে তাই চলছে নিউজিল্যান্ডের ফাস্ট বোলারের স্তুতি আর সে সূত্রেই আবির্ভাব ‘ফার্গি টাইমে’র। কারণ অতিরিক্ত সময় মানেই যে ‘ফার্গি টাইম’। আর এরই ডামাডোলে হারিয়ে গেছে ডেভিড ওয়ার্নারের দারুণ এক রেকর্ড।

বিজ্ঞাপন

সুপার ওভারের শুরুটাই হয়েছে ওয়ার্নারকে দিয়ে। ফার্গুসনের প্রথম বলটি পয়েন্ট দিয়ে পাঠাতে চেয়ে বোল্ড হয়েছেন ওয়ার্নার। এক বল পর আবদুল সামাদও বোল্ড হয়েছেন ফার্গুসনের বলে। কলকাতার সাবেক ও বর্তমান অধিনায়ক এউইন মরগান ও দিনেশ কার্তিক ২ বল বাকি থাকতেই ৩ রানের লক্ষ্য পার করেছেন সুপার ওভারে। যোগ্য দল হিসেবেই জিতেছে তারা। কলকাতার আয়ত্তে থাকা ম্যাচটাকেই শেষ পর্যন্ত সুপার ওভারে এত নাটক করতে কলকাতাকে বাধ্য করেছেন ওয়ার্নারই। এর আগে ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচটা কলকাতার আয়ত্তে নিয়ে এনেছিলেন ওই ফার্গুসনই।

১৬৪ রানের লক্ষ্যে নামা হায়দরাবাদ পাওয়ার প্লেতে বেশ দ্রুত রান তুলেছিল। প্রায় ১০ রান রেটে ৫৮ তোলা দলটিই এরপর পথ হারাল। পরের ৯ ওভারে মাত্র ৫১ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। পরে সামাদকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে গেছেন ওয়ার্নার। আজ চারে নেমে নতুন ভূমিকায় ভালোই করেছেন ওয়ার্নার। শেষ ওভারে ১৮ রান দরকার ছিল। টানা চার চারে সমীকরণটাকে ১ বলে দুই রানে নামিয়ে এনেছিলেন। কিন্তু শেষ বলে ১ রানের বেশি করতে পারেননি। ৩৩ বলে ৪৭ রান করে অপরাজিত ছিলেন ওয়ার্নার।

বিজ্ঞাপন
default-image

৪৭ রান করার পথেই আইপিএল পাঁচ হাজার রান হয়ে গেছে ওয়ার্নারের। মাত্র চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এ মাইলফলক ছুঁয়েছেন এই অস্ট্রেলিয়ান। প্রথম বিদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে আইপিএলে পাঁচ হাজার রান করেছেন সানরাইজার্স অধিনায়ক। তাঁর আগে এ কাজ শুধু বিরাট কোহলি (৫৭৫৯), সুরেশ রায়না (৫৩৬৮) ও রোহিত শর্মা (৫১৪৯) করেছেন। তবে বাকিদের চেয়ে ওয়ার্নার একটি দিকে এগিয়ে আছেন। সবচেয়ে কম সময়ে এ কাজ করেছেন ওয়ার্নার। এ মাইলফলক ছুঁতে মাত্র ১৩৫ ইনিংস দরকার হয়েছে ওয়ার্নারের।

মন্তব্য পড়ুন 0