বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ হলো, আরেকটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসছে মাস দশেক পরই। এর মধ্যে বিশ্বকাপের তিন দিনের মধ্যেই এমন একটা টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা-উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক। উঠছেও। তার মধ্যে এই সিরিজে ভারতের দলে নেই বিরাট কোহলি, নিউজিল্যান্ডে নেই কেইন উইলিয়ামসন।

কিন্তু ভারতের ক্রিকেটে এই ম্যাচটা হয়ে থাকতে পারে একটা নতুন যুগের শুরু হিসেবেই! কোচ হিসেবে দ্রাবিড়ের শুরু, ওদিকে টি-টোয়েন্টি থেকে ওয়ানডে অধিনায়কও রোহিত হয়ে যেতে পারেন বলে গুঞ্জন। সেই দুজনের শুরুতে আজ ভারত জিতল কী অনায়াসে!

কুয়াশার ব্যাপার জড়িত বলে টস জেতাই এখন ক্রিকেট ম্যাচের অনেকটা ভাগ্য গড়ে দেয়। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এ নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। আজও হয়তো টস জেতাই ভারতের জয়ের রাস্তাটা এত সহজ করে দিয়েছে! টস জিতে আগে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত, যাতে পরে নিউজিল্যান্ডের বোলিংয়ের সময় কুয়াশার মধ্যে ভারতের ব্যাটিংয়ের সুবিধা হয়। তা-ই হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের ১৬৫ রানের জবাবে শুরু থেকেই দারুণ দাপুটে ব্যাটিং করতে শুরু করেন ভারতের দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল। মূলত রোহিতই যা করার করছিলেন! এমনই দাপট ছিল তাঁর যে, ৫ ওভারেই ৫০ রান পেরিয়ে যায় ভারত।

default-image

কিন্তু ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলেই ‘রোহিত’ হওয়ার চেষ্টায় আউট রাহুল। মিচেল স্যান্টনারের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ধরা পড়লেন ডিপ মিড উইকেটে। ১৪ বলে ১৫ রান করে ফিরেছেন তিনি।

এরপর তিনে নামা সূর্যকুমারকে পেয়ে আরও যেন দাপুটে হয়ে ওঠেন রোহিত। দুজন মিলে বলতে গেলে স্টিমরোলার চালিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের বোলারদের ওপর। নিউজিল্যান্ডের ফিল্ডিংও আজ মোটেও নিউজিল্যান্ডের মতো ছিল না। ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রোহিত যখন আউট হচ্ছেন, দলের রান ততক্ষণেই হয়ে গেছে ২ উইকেটে ১০৯। রোহিতের ৪৮ রানের ইনিংস এসেছে ৩৬ বলে, ৫ চার ও ২ ছক্কায়।

রোহিত ফিরলেও নিউজিল্যান্ডের মুক্তি ছিল না। সূর্যকুমার তো ছিলেন! শেষ পর্যন্ত বোল্টের বলে বোল্ড হয়েছেন ৪০ বলে ৬২ রান করে, তাঁর ইনিংসে চার ৬টি, ছক্কা ৩টি। ১৭তম ওভারে সূর্যকুমার যখন আউট হচ্ছেন, তখন ভারতের আর ২০ বলে ২১ রান দরকার।

default-image

এই ম্যাচ যে শেষ পর্যন্ত শেষ ওভারে গেছে, ভারতের আরও দুটি উইকেট পড়েছে, সেটি নিশ্চিত নোটখাতায় টুকে নিয়েছেন দ্রাবিড়।

এর আগে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়েও যা করার করেছেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল ও তিনে নামা মার্ক চ্যাপম্যান। ১ রানেই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ড্যারিল মিচেলকে হারানো নিউজিল্যান্ডকে দারুণভাবে এগিয়ে নেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান গাপটিল ও তিনে নামা চ্যাপম্যান।

শুরুতে চ্যাপম্যানই বেশি বল খেলছিলেন, ৪৫ বলে তাঁর অর্ধশতক পূরণ হওয়ার সময়ও গাপটিলের রান ছিল ২৫ বলে ৩৫। সেটিও অষ্টম ওভারের শেষ দুই বলে একটি করে চার-ছক্কা মারায়!

১৪তম ওভারে দলকে ১১০ রানে রেখে চ্যাপম্যান ফিরলেন ব্যক্তিগত ৬৩ রানে, গাপটিল তখন শুরু করলেন আক্রমণ। ৩১ বলে এল অর্ধশতক, ১৮তম ওভারে দলকে ১৫০ রানে রেখে আউট হলেন ৪২ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৭০ রান করে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন