default-image
>লকডাউনের সময় বাড়িতে চুপচাপ বসে নেই ভারতীয় ক্রিকেটাররা। কেউ শখ পূরণ করছেন, কেই মাকে সাহায্য করছেন।

পেশাদার ক্রীড়া জগৎটা বড্ড নিষ্ঠুর। তারকা খেলোয়াড়েরা কাড়ি কাড়ি টাকা কামান ঠিকই, তবে তা পেতে ত্যাগ স্বীকারও কম করতে হয় না। পারিবারিক জীবন, সামাজিক জীবন সব হারিয়ে যাওয়ার জোগাড় হয় জীবন থেকে।

একটু ছুটির জন্য হাপিত্যেশ করা সেই খেলোয়াড়েরা এবার অযাচিতভাবেই পেয়ে গেলেন ছুটি। সেটিও কিনা অনির্দিষ্ট কালের জন্য। করোনাভাইরাস নামের মহামারি শুধু কী খেলা, থমকে দিয়েছে প্রায় পুরো বিশ্বকেই। না চেয়েই পেয়ে যাওয়া সেই ‘ছুটি’ অবশ্য বাড়িতে বসেই কাটাতে হচ্ছে। সংক্রমণ রোধে এর চেয়ে ভালো উপায় যে আর নেই।

‘ছুটি’তে আছেন ভারতের নামীদামি সব ক্রিকেটাররাও। লকডাউনে বাড়িতে আটকা পড়লেও অবশ্য অলস বসে নেই তাঁরা। মানুষকে ঘরে থাকার আহ্বান তো জানাচ্ছেনই, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘরে বসে কী করছেন সেটিও জানিয়ে দিচ্ছেন বিরাট কোহলিরা।

অথচ এই সময়ে আইপিএল নিয়ে ব্যস্ত থাকার কথা ছিল তাঁদের। আইপিএল নিয়ে মেতে ওঠার কথা ছিল পুরো ভারতেরই। মানুষের পরিকল্পনা মতো যে সবকিছু হয় না, মানুষ যে অদৃশ্য এক শক্তির খামখেয়ালির ওপর নির্ভরশীল সেটিই প্রমাণ করে দিচ্ছে করোনাভাইরাস।

তবু জীবন তো থমকে থাকে না। ঘরে বন্দী থাকলেও ব্যস্ততার কমতি নেই। বিরাট কোহলিও যেমন প্রায় প্রতিদিনই ভিডিও বার্তায় দেশবাসীকে আহ্বান জানাচ্ছে ঘরে থাকতে। তবে এই সব বার্তা নয় কোহলি সবচেয়ে লাইক পেয়েছেন চুল কাটার এক ভিডিও থেকে। অভিনেত্রী স্ত্রী আনুশকা শর্মা চুল কেটে দিচ্ছেন কোহলির, এই ভিডিও টুইটারে এরই মধ্যে লাখের বেশি লাইক পেয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কোহলি নিয়মিতই যোগাযোগ রাখছেন সতীর্থ ও ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে। ইংল্যান্ডের সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসেনের সঙ্গে ইনস্টাগ্রামে লাইভ চ্যাটিং করে নিলেন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক। যেখানে বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতি ও আর অনেক কিছু নিয়েই আলোচনা করেছেন ৩১ বছর বয়সী কোহলি।

বাড়িতে থাকার সময়ে ঘোড়ায় চড়ার শখ মিটিয়ে নিচ্ছেন ভারতীয় অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা। এক ভিডিওতে তাঁকে দেখা গেল সাদা রঙের এক স্ট্যালিয়নে চড়ে বেড়াতে। ট্রিডমিলে দৌড়ানোর ভিডিও পোস্ট করছেন সৌরাষ্ট্রের এই ক্রিকেটার।

পেসার যশপ্রীত বুমরা নিয়মিত পানি দিচ্ছেন বাগানে। কে সাহায্য করছেন গৃহস্থালি কাজে, নিজের ঘর নিজেই মুছে নিচ্ছেন। অদ্ভুত এই সময়ে জীবন নিয়েও ভাবছেন বুমরা, ‘জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিসগুলো নিয়ে ভাবার সময় এখন। নতুন কিছু শখ জোগাড় করারও সময় এটি।’

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই দেশটির প্রধানমন্ত্রী করোনাভাইরাস ত্রাণ তহবিলে ৬৮ কোটি রুপি সাহায্য দিয়েছে। সংস্থাটির টুইটার পেজ টেস্ট ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পূজারা ও তাঁর স্ত্রী-কন্যার ছবি দিয়ে লিখেছে, ‘পূজারা পরিবার বাড়িতে সময় কাটাচ্ছে। বাচ্চার সঙ্গ সময় কাটানো ছাড়াও বাড়ির কাজও করছেন পূজারা। বাড়িতে থাকুন, নিরাপদে থাকুন।’

আরেক পেসার মোহাম্মদ শামি নিজের কুকুর জ্যাকের সঙ্গে ছবি তুলে ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘সবচেয়ে ভালো সময় কাটাচ্ছি।’ দলটির ব্যাটসম্যান শিখর ধাওয়ানের কাপড় ধোয়ার দৃশ্য তো রীতিমতো ভাইরালই হয়েছে। মজা করে বানানো সেই ভিডিওতে দেখা গেছে ধাওয়ানের স্ত্রী সে সময়ে সাজগোছ করছেন।

এই সময়ে ভারতীয় ক্রিকেট ধারাভাষ্যকাররাও মজার মজার সব পোস্ট দিচ্ছেন। এদের একজন সাবেক ক্রিকেটার সঞ্জয় মাঞ্জরেকারকে সবজি কাটতে কাটতে সেটির ধারাভাষ্যও দিতে দেখা গেল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0