বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের জয়ের পরই যেমন, পিটিভির সরাসরি এক লাইভ টক শোতে উপস্থাপকের সঙ্গে মতবিরোধের জেরে অনুষ্ঠান ছেড়ে চলে যান পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার। এ ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে তা নিয়ে একটা বিবৃতিও দিয়েছে পিটিভি। তবে এই বিবৃতিকে নিছক হাস্যকর মনে হয়েছে শোয়েবের কাছে।


শোয়েবের টক শোতে উপস্থাপক হিসেবে হাজির ছিলেন ড. নোমান নিয়াজ। শোয়েবের ঝামেলা তাঁর সঙ্গেই। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের পর ওই অনুষ্ঠানে শুধু শোয়েবই নন, হাজির ছিলেন কিংবদন্তি ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যান স্যার ভিভ রিচার্ডস, সাবেক ইংলিশ ব্যাটসম্যান ডেভিড গাওয়ার, সাবেক পাকিস্তানি পেসার আকিব জাভেদ, সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক রশিদ লতিফসহ অনেকে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের জয়ে অন্যতম ভূমিকা ছিল পেসার হারিস রউফের, চার উইকেট নিয়েছেন তিনি। শোয়েব নিজেও গতির প্রেমিক দেখেই কিনা রউফকে নিয়ে একটু বেশিই উচ্ছ্বসিত ছিলেন। হারিসের উন্নতির জন্য কৃতিত্ব দেন পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) ফ্র্যাঞ্চাইজি লাহোর কালান্দার্সকে। লাহোর খেলোয়াড়দের পেছনে অনেক সময় ব্যয় করে বলেই হারিস রউফের এত উন্নতি হয়েছে, এমনটাই দাবি ছিল শোয়েবের।


কিন্তু কোনো এক কারণে শোয়েবের এ বক্তব্য মনে ধরেনি নোমান নিয়াজের। রউফ প্রসঙ্গের মধ্যেই টেনে আনেন শাহিন শাহ আফ্রিদিকে। যুবদলে খেলেই শাহিনের উন্নতি, এ প্রসঙ্গ টেনে নোমান বলেন, পিএসএল নয়, বরং পাকিস্তানি পেসারদের উন্নতির জন্য যুবদল দায়ী। এভাবে রউফ-শাহিন টানাটানির একপর্যায়ে শোয়েবকে লাইভ অনুষ্ঠান ছেড়ে চলে যাওয়ার উপদেশ দেন নিয়াজ। ‘আপনি অতি চালাক এবং অভদ্রের মতো আচরণ করছেন। আপনার উচিত এ অনুষ্ঠান ছেড়ে চলে যাওয়া’ বলেই অনুষ্ঠানে বিজ্ঞাপন বিরতি দেন নিয়াজ।

default-image

বিরতি থেকে ফিরে শোয়েব ও নিয়াজ নানা কথা বলে পরিস্থিতি হালকা করার চেষ্টা করলেও বোঝা যাচ্ছিল, কোনো এক জায়গায় সুর কেটে গেছে। শোয়েব অনুষ্ঠানের বাকি সময় অপ্রস্তুত ছিলেন। অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে তাঁর সঙ্গে ওই আচরণ করার জন্য নিয়াজকে দুঃখ প্রকাশ করতে বলেন শোয়েব। কিন্তু নিয়াজ তেমনটা করেননি।

শোয়েবও ব্যাপারটা আর নিতে পারেননি। সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে অনুষ্ঠান ত্যাগ করেন সাবেক এই পেস তারকা। পরে টুইটারে নিজের এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দেন শোয়েব।
পুরো ঘটনায় এত দিন পিটিভি মুখে কুলুপ এঁটে থাকলেও কাল নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে।

এ ঘটনা নিয়ে যত দিন তদন্ত শেষ না হবে, তত দিন শোয়েব ও নোমান—দুজনের কাউকেই পিটিভির কোনো অনুষ্ঠানে ডাকা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে চ্যানেলটি, ‘নোমান নিয়াজ আর শোয়েব আখতার দুজনকেই পিটিভির পরবর্তী যেকোনো অনুষ্ঠান থেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দুজনের মনোমালিন্যের ব্যাপারে যত দিন তদন্ত শেষ না হচ্ছে, তত দিন দুজন পিটিভির কোনো অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন না।’


পিটিভির এই বিবৃতি শুনে শোয়েব ফেটে পড়লেন হাসিতে। টুইটারে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে একদমই দেরি করেননি, ‘ব্যাপারটা আসলে হাস্যকর। ২২ কোটি পাকিস্তানি এবং আরও কোটি কোটি বিশ্ববাসীর সামনে আমি অনুষ্ঠান থেকে সরে দাঁড়ালাম। পিটিভি কি পাগল নাকি? আমাকে অনুষ্ঠান থেকে সরিয়ে দেওয়ার কে ওরা?’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন