বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৬ উইকেটে ২৪১ রান নিয়ে প্রথম দিন শেষ করেছিল অস্ট্রেলিয়া। শেষ সেশনে বৃষ্টি না হলে হয়তো আরও কিছু রান যোগ হতো অস্ট্রেলিয়ার খাতায়। মিচেল স্টার্ককে (০*) নিয়ে অ্যালেক্স ক্যারি (১০*) জুটি ৫ রান তোলার পর বৃষ্টি নেমেছিল।

দুজনই শুরু করেছিলেন আজকের খেলা। দিনের চার ওভার যেতে না যেতেই মার্ক উডের শিকার হন মিচেল স্টার্ক। উডের একটা শর্ট বল মারতে গিয়ে উল্টো ররি বার্নসকে ক্যাচ দিয়ে বসেন স্টার্ক। আউট হওয়ার আগে ১৭ বলে ৩ রান করেন এ পেসার।

default-image

এরপর অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্সকেও নিজের শিকার বানান উড। স্টার্কের মতো কামিন্সও উডের শর্ট বলে উইকেট বিলিয়ে এসেছেন। রাউন্ড দ্য উইকেটে বল করতে এসেছিলেন উড, ডিপ স্কয়ার লেগের দিকে উডের বল মারতে গিয়ে উল্টো জ্যাক ক্রলিকে ক্যাচ দিয়ে বসেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক।

১২ বলে ২ রান করেন কামিন্স। আজ সকাল থেকেই সমানে শর্ট বল করে গিয়েছেন উড। লায়নের কাছে মার খাওয়ার ব্যাপারটা বাদ দিলে বেশ সফলই হয়েছেন সেই পরিকল্পনায়।

শর্ট বলে স্টার্ক-কামিন্সদের উইকেট বিলিয়ে আসা দেখে আরেক প্রান্তে থাকা অ্যালেক্স ক্যারিও ধৈর্যহারা হলেন। ৬০ বলে ২৪ রান করে ক্রিস ওকসের বলে বোল্ড হয়েছেন তিনি। দলের রান তখন ৯ উইকেটে ২৮০।

এরপর বোল্যান্ড এসে দুটি চার মেরে দলকে ৩০০ রানের কাছাকাছি নিয়ে যান। শেষমেশ স্টুয়ার্ট ব্রডের বলে ইনিংসের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে বোল্ড হন লায়ন। তিনটি ছক্কা মেরেছেন, অস্ট্রেলিয়ার ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে যে কীর্তি আগে ছিল শুধু ডেনিস লিলি (১৯৭৫ সালে লর্ডসে), আর স্টুয়ার্ট ক্লার্কের (২০০৯ সালে হেডিংলিতে)। বলা বাহুল্য, দুবারই প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড।

আগের দিনের রানের সঙ্গে আজ ৬২ রান যোগ করতে পেরেছে অস্ট্রেলিয়া। ২০১৯ সালের পর এই প্রথম ইনিংসে ৩০০ পার করল অস্ট্রেলিয়া, যে ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার তিন ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথ ও মারনাস লাবুশেন অন্তত একটা অর্ধশতকও করেননি।

ব্যাট করতে নেমে নৈশভোজে যাওয়ার আগে ১২ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৩৪ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। দুই ওপেনার হারিয়েছে ইংল্যান্ড, ক্রিজে আছেন জো রুট আর ডেভিড মালান। ররি বার্নস রানআউট হয়েছেন, আর বাকি উইকেট নিয়েছেন প্যাট কামিন্স।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন