default-image

লিটনের দাসের ওই কথাটার সঙ্গে একমত নন তামিম ইকবাল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিলেটে প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরি করে লিটন ক্রিকেটকে বলেছিলেন ‘হতাশার খেলা’। কাল তামিম এ ব্যাপারে বলেছেন, লিটনের কথাটা ঠিক নয়।

কী বলেছিলেন লিটন? তাঁর মতে, ক্রিকেট এমন একটা খেলা, যেটি সব সময়ই হতাশার। কোনো ব্যাটসম্যান যতই রান করুক, তাঁর মধ্যে নাকি আক্ষেপ, হতাশা থেকেই যায়। ব্যাপার অনেকটা এমন, ‘ইশ্‌! আর কিছু রান যদি করা যেত!’

ভালোর তো কোনো শেষ নেই। সেদিক দিয়ে ক্রিকেটে সব সময়ই একটা হতাশা থেকে যায়। সেঞ্চুরি করার পর আউট হয়ে গেলে ব্যাটসম্যান হতাশ হন, সেটিকে আরও বড় করতে না পারার কারণে, বড় ইনিংস নিয়েও হতাশা থাকে। সেটি তো ডাবল সেঞ্চুরি কিংবা ট্রিপল সেঞ্চুরিও হতে পারত!

এসব ব্যাপার বিবেচনায় নিয়েই লিটন সেদিন মন্তব্যটা করেছিলেন। সহজ-সরল মন্তব্য। তবে কাল সিলেটে সংবাদকর্মীদের মুখোমুখি হয়ে তামিম বললেন, ক্রিকেট মোটেও হতাশার খেলা নয়, ‘ক্রিকেট হতাশার খেলা, এটা বলা ঠিক নয়। ক্রিকেটের অনিশ্চয়তাই এটিকে দারুণ একটা খেলায় পরিণত করেছে। এ খেলায় একদিন খুশি হবেন, একদিন হতাশ থাকবেন। এটা মিশ্র অনুভূতির খেলা।’

ক্রিকেট যে মিশ্র অনুভূতির খেলা, সেটি তামিমের চেয়ে ভালো আর কে বোঝেন। ২০০৭ সাল থেকে জাতীয় দলে খেলছেন। সমালোচনা কখনোই তাঁর পিছু ছাড়েনি। দেশের হয়ে ওয়ানডেতে ৭ হাজারের ওপর রান করেছেন। দেশকে জিতিয়েছেন কত ম্যাচ, কিন্তু পান থেকে চুন খসলেই সমালোচকেরা পিছু নিয়েছে তাঁর। আবার সেই সমালোচকেরাই উদ্‌যাপন করেছে তাঁর অর্জন।


অনুজ লিটনকে তামিম বলতেই পারেন, ক্রিকেট মিশ্র অনুভূতির এক খেলা!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0