বেঙ্গালুরুকে এখনো শিরোপা এনে দিতে পারেননি বিরাট কোহলি।
বেঙ্গালুরুকে এখনো শিরোপা এনে দিতে পারেননি বিরাট কোহলি।ছবি: বিসিসিআই

দলে দুর্দান্ত সব ব্যাটসম্যান। বিরাট কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্স টানা কতগুলো মৌসুম খেলছেন। ক্রিস গেইল ছিলেন তিন মৌসুম আগেও। এমন সব ব্যাটসম্যানে ঠাসা ব্যাটিং লাইনআপ নিয়েও র‍য়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু কখনো আইপিএলের শিরোপা জিততে পারেনি।

বেঙ্গালুরুর এই মলিন পরিসংখ্যানে সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান কোহলির একটু অস্বস্তিতেই পড়ার কথা। ভারতের জার্সিতে যতটা সফল, বেঙ্গালুরুর হয়ে ঠিক ততটা তিনি নন। কোহলি অবশ্য এসব রেকর্ড-পরিসংখ্যান নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নন।

বিজ্ঞাপন

১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আরব আমিরাতে শুরু হচ্ছে আইপিএলের ১৩তম পর্ব। এবার শিরোপা-খরা ঘোচাতে বাড়তি কোনো চাপ নিচ্ছেন না কোহলি। তবে টুর্নামেন্টে বছরের পর বছর শিরোপাহীন থাকার কষ্টটা বেশ অনুভব করেন ভারতীয় তারকা ব্যাটসম্যান, ‘আমরা অবশ্যই এটা অনুভব করি। আমরা (ডি ভিলিয়ার্স ও তিনি) এটা নিয়ে কথা বলেছি। কোনো মৌসুম শুরুর আগে এতটা নির্ভার মনে হয়নি। সে ভিন্ন জায়গা থেকে এসেছে। নিজের জীবনটা উপভোগ করছে। সে খুবই নির্ভার। সম্প্রতি খুব একটা খেলেনি সে, তবুও মনে হচ্ছিল যেন ২০১১ সালের মতোই খেলছে। আগের মতোই ফিট আছে। আমার নিজেরও মনে হচ্ছে খুব ভালো অবস্থান থেকে এসেছি, আইপিএলের পরিবেশে এসে মনে হচ্ছে আরও ভারসাম্যপূর্ণ।’

বিজ্ঞাপন
default-image

কোহলি বলছেন তাদের দলটা অভিজ্ঞ আর তারুণ্যের মিশেলে হয়েছে ভীষণ ভারসাম্যপূর্ণ। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কথা এবারও জোর দিয়ে বলছেন না বেঙ্গালুরু অধিনায়ক বলছেন, একটি সম্মানজনক অবস্থানে তাঁরা যেতে চান। সম্মানজনক অবস্থানের কথা বলা কি পুরোনো পরিসংখ্যান দেখে?

কোহলি অতীতে তাকাতে একেবারেই অনাগ্রহী, ‘আগে যা হয়েছে সে সব থেকে বিচ্ছিন্ন থাকাটাই হচ্ছে আসল কথা। ওসব নিয়ে ভাবা যাবে না। আমাদের দুর্দান্ত সব খেলোয়াড় আছে। মানুষ তাদের খেলা দেখতে পছন্দ করে, তাদের প্রতি প্রত্যাশাটাও বেশি। আমরা যদি-কিন্তু ভাবতে চাই না। জানি দল হিসেবে আমরা কী করতে পারি। আমরা মাঠে অসাধারণ খেলতে উন্মুখ হয়ে আছি।’

মন্তব্য পড়ুন 0