বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল নিউজিল্যান্ড-আফগানিস্তান ম্যাচে নজর ছিল সবার। দিনের প্রথম খেলায় নিউজিল্যান্ড হারলেই আজ ভারতের ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠত, কিন্তু সহজ জয় পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। এতে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ শুরু করা ভারতের বিদায়ও নিশ্চিত হয়ে গেছে। সে ম্যাচে পরই ম্যাচের আগের অনুশীলন বাতিল করে দিয়েছে ভারত। যে ম্যাচের আর কোনো গুরুত্ব নেই, সে ম্যাচের জন্য টানা ম্যাচের ক্লান্তির সঙ্গে অনুশীলনের কষ্ট যোগ করতে চায়নি দলটি।

আজকের ম্যাচটি তাই শুধুই কোহলির বিদায়ের উপলক্ষ হয়ে উঠেছে। ২০১৭ ভারতের সব সংস্করণের অধিনায়ক হয়েছেন কোহলি। এরপর ভারতকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। নিজের ইতিবাচকতা ও আগ্রাসী মানসিকতা দলের মধ্যে ছড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর অধীনই বিদেশের মাটিতে সমীহ জাগানো দল হয়ে উঠেছে ভারত। প্রথম ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট জিতেছে ভারত। অস্ট্রেলিয়া টানা দুটি টেস্ট সিরিজ জয়ের কীর্তিও তাঁর সময়ে। তর্ক সাপেক্ষে, দেশে ও দেশের বাইরের পারফরম্যান্স মিলিয়ে টেস্টের সেরা দল এখন ভারত।

default-image

ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টিতেও ভারত সেরাদের একটি। তাঁর অধীন ভারতের পেস বোলিং আক্রমণ হয়ে উঠেছে দুর্দান্ত। পেস বোলারদের জন্য সহায়ক অধিনায়ক কোহলি। তাঁর শরীরী ভাষা ও আগ্রাসন বোলারদের মধ্যেও ছড়িয়ে দিতে পারেন তিনি।

কিন্তু আইসিসির টুর্নামেন্টে ব্যর্থই থাকলেন কোহলি। টি-টোয়েন্টিতে প্রথম কোনো বিশ্বকাপে অধিনায়কত্ব করার আগেই বিদায়ের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছেন। সে টুর্নামেন্টে সেমিতে খেলাও হলো না তাঁর। তাঁর অধীন এ নিয়ে আইসিসির চারটি টুর্নামেন্ট থেকে হতাশা নিয়ে ফিরল ভারত। ফেবারিটের তকমা নিয়ে বারবার এমন হতাশায় এমনকি ওয়ানডে দলের দায়িত্ব থেকেও সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। বিশ্বকাপের পর এমন সিদ্ধান্ত যদি নিয়ে ফেলে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তাহলে শূন্য হাতেই বিদায় নিতে হবে কোহলিকে।

২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি দিয়ে শুরু। ফেবারিট হিসেবে ফাইনাল খেলতে নেমে পাকিস্তানের কাছে বিশাল ব্যবধানে হেরেছিল ভারত। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপেও সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে খুব অল্প রানে আটকে ফেলেও পারেনি ভারত। টপ অর্ডারের ব্যর্থতায় সেমি থেকেই বিদায় নিয়েছে দলটি। ২০২১ সালে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে সেই নিউজিল্যান্ড কোহলিকে আইসিসির কোনো শিরোপা পেতে দেয়নি। ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও নিউজিল্যান্ডের কাছে হার কোহলির ভারতের ভাগ্য নির্ধারণ করে দিল।

এর আগে মহেন্দ্র সিং ধোনির অনুপস্থিতিতে ২০১৪ সালেও ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কোহলি। সেবার তাঁর অধীন এশিয়া কাপ খেলতে গিয়ে ভারত ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছিল। আর কোহলি ভারতের দায়িত্ব পাকাপাকিভাবে বুঝে নেওয়ার পর একটি শিরোপাই জিতেছে দলটি। ২০১৮ এশিয়া কাপের সে সময়টায় বিশ্রামে ছিলেন কোহলি!

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন