বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১৭৮ রান তাড়ায় এদিনও তামিমের ওপেনিং সঙ্গী ছিলেন প্রদীপ ঐরি। ইনিংসের দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওভারে একটা করে চার মারেন তামিম। চতুর্থ ওভারে ঐরি ফিরে যাওয়ার পরের ওভার ফেরেন তামিমও। এর আগে মেরেছেন আরেকটা বাউন্ডারি। ঐরি ও তামিমের পর পাওয়ার প্লেতে রোহিত পদেলকেও হারায় ভৈরহাওয়া, ৬ ওভার শেষে তাদের স্কোর ছিল ৩ উইকেটে ৩৬ রান।

সেখান থেকে ভৈরহাওয়া ঘুরে দাঁড়ায় উপুল থারাঙ্গা ও আরিফ শেখের জুটিতে। চতুর্থ উইকেটে দুজন যোগ করেন ৮৪ রান। সমানসংখ্যক বলে ২৮ রান করে আরিফ ফেরার সময়ও অবশ্য ভৈরহাওয়ার প্রয়োজন ছিল ৩০ বলে ৬৫ রান। মাল্লার ১৯ বলে ৩৫ রানের ঝোড়ো ইনিংসে সে ব্যবধান কমলেও শেষ ওভারে ১৮ রানের বাধাটা ছিলই।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ললিতপুর ২০ ওভারে ১৭৭ রান তোলে ৭ উইকেট হারিয়ে। দ্বিতীয় ওভারেই অধিনায়ক কুশল ভুর্তেলকে হারালেও আরেক ওপেনার সন্দুন বিরাক্কুরি খেলেছেন ৪১ বলে ৫৮ রানের ইনিংস। দ্বিতীয় উইকেটে ওশাদা ফার্নান্ডোর সঙ্গে ৬৭ রানের পর তৃতীয় উইকেট জুটিতে সুন্দীপ জোরার সঙ্গে আরও ২৭ রান যোগ করে ফেরেন বিরাক্কুরি। এরপর জোরার ২৫ বলে ৩৮ রানের সঙ্গে আফগান অলরাউন্ডার আজমতউল্লাহ ওমরজাইয়ের ২২ বলে ৪২ রানের ঝোড়ো ইনিংসে ১৭৭ পর্যন্ত যায় ললিতপুর।

default-image

আগের দিন প্রতিপক্ষকে ৮৯ রানে অলআউট করলেও এদিন তামিমের দলের বোলারদের ভালো চ্যালেঞ্জের সামনেই পড়তে হয়েছে। ধাম্মিকা প্রসাদ আজ ১ উইকেট নিয়েছেন ৩০ রানে। ২ উইকেট নিলেও ৪ ওভারে ৪৭ রান গুনেছেন অবিনাশ বোহরা। এ ছাড়া কৃষ্ণা কার্কি ৩৪ রানে নিয়েছেন ১ উইকেট, ১ ওভারে ৭ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছেন আরিফ।

লিগে ৩ ম্যাচ খেলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে এখন পর্যন্ত শীর্ষে আছে তামিমের দল ভৈরহাওয়া। তাদের পরবর্তী ম্যাচ আগামী শনিবার, প্রতিপক্ষ কাঠমান্ডু কিংস ইলেভেন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন