default-image

টেস্ট স্কোয়াডে কোনো পরিবর্তন নেই তেমন, যে দলটা পাকিস্তানে গিয়ে টেস্ট সিরিজ জিতে এসেছে সে দলের সবাইকেই রাখা হয়েছে। টেস্ট স্কোয়াডে ১৬ জন রাখা হয়েছে, কোভিডের সময় সতর্কতা হিসেবে স্কোয়াডে বাড়তি সদস্য রাখা হলেও সে ধারা থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া, যে কারণে বেশি খেলোয়াড় রাখা হয়নি।

ওদিকে এক কামিন্স ছাড়া টি-টোয়েন্টিতে বলতে গেলে পূর্ণশক্তির দলই ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে মাথায় রেখে পাকিস্তান সফরে সাদা বলের ফরম্যাটে না খেলা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ম্যাথু ওয়েড, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল মার্শ, জশ হ্যাজলউড, মিচেল স্টার্ক, ডেভিড ওয়ার্নার, ঝাই রিচার্ডসন, কেইন রিচার্ডসন সবাইকেই ফেরানো হয়েছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে।

অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজলউড, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মিচেল মার্শ, মার্কাস স্টয়নিস, শন অ্যাবট, ম্যাথু ওয়েড (উইকেটকিপার), অ্যাশটন অ্যাগার, মিচেল সোয়েপসন, ঝাই রিচার্ডসন, জশ ইংলিশ (উইকেটকিপার), কেইন রিচার্ডসন

অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে স্কোয়াড: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), প্যাট কামিন্স, ডেভিড ওয়ার্নার, মিচেল স্টার্ক, স্টিভেন স্মিথ, মারনাস লাবুশেন, জশ হ্যাজলউড, মার্কাস স্টয়নিস, মিচেল মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যাশটন অ্যাগার, ট্রাভিস হেড, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটকিপার), ক্যামেরন গ্রিন, জশ ইংলিশ (উইকেটকিপার), মিচেল সোয়েপসন

অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট স্কোয়াড: প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), স্টিভেন স্মিথ (সহ-অধিনায়ক), মিচেল স্টার্ক, ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটকিপার), জশ হ্যাজলউড, মারনাস লাবুশেন, নাথান লায়ন, মিচেল মার্শ, উসমান খাজা, অ্যাশটন অ্যাগার, ট্রাভিস হেড, ক্যামেরন গ্রিন, স্কট বোল্যান্ড, জশ ইংলিশ (উইকেটকিপার), মিচেল সোয়েপসন

অস্ট্রেলিয়ার ‘এ’ স্কোয়াড: শন অ্যাবট, স্কট বোল্যান্ড, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, অ্যারন হার্ডি, মার্কাস হ্যারিস, ট্রাভিস হেড, হেনরি হান্ট, জশ ইংলিশ, ম্যাথু কুনেমান, নিক ম্যাডিনসন, টড মারফি, জশ ফিলিপ, ম্যাট রেনশ, ঝাই রিচার্ডসন, তানভীর সাঙ্ঘা, মার্ক স্টেকেটি।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন