হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সাকিব বলেছেন, ‘একদম হঠাৎ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া। এক ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যেহেতু ভাবলাম একটা সুযোগ আছে খেলার; সামনে শ্রীলঙ্কা সিরিজও আছে। এখন যদি কয়েকটা ম্যাচ খেলতে পারি, তাহলে আমার জন্য প্রস্তুতিটা ভালো হবে।’

প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানে নাম লেখালেও জাতীয় দলের ব্যস্ততা আর পারিবারিক সমস্যার কারণে ঐতিহ্যবাহী দলটির হয়ে মাঠে নামা হয়নি সাকিবের। ওদিকে সুপার লিগেও উঠতে পারেনি মোহামেডান। এ জন্য নিয়ম মেনেই মোহামেডান ছেড়ে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জে নাম লিখিয়েছেন সাকিব।

default-image

এ ব্যাপারে সাকিব বলেছেন, ‘যেহেতু অনেক দিনের একটা বিরতি পড়ে গেল, এক মাসের মতো আমি ক্রিকেট খেলিনি। তাই সুপার লিগের এই চারটি ম্যাচ খেলতে পারলে খেলার মধ্যে আসার একটা সুযোগ হলো। সে জন্যই সুযোগটা নেওয়া।’

আগামী ৮ মে বাংলাদেশ সফরে আসবে দিমুথ করুনারত্নের দল। ১৫ মে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট খেলে ২৩ মে মিরপুরে খেলবে সিরিজের শেষ টেস্ট। দুটি ম্যাচই আবার আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সাকিবের খেলা নিয়ে কোনো শঙ্কা যদি থেকেও থাকে, সেটি আজ দেশে পা রেখেই দূর করেছেন সাকিব, ‘সন্দেহর তো কোনো কারণ ছিল বলে আমার মনে হয় না। যদি কোনো জরুরি কাজ থাকত, তাহলে সেটা অন্য জিনিস। এখন অবশ্যই ভালো অনুভব করছি, এখন মনোযোগটা ক্রিকেটে রাখতে চাচ্ছি। চেষ্টা থাকবে পরবর্তী যত ম্যাচ আছে, সবই যেন খেলতে পারি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন